SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ২৪-১১-২০১৭ ১৬:৫৩:৩৭

যে কারণে এখনও বিশ্বকাপের স্বপ্ন দেখছে ইতালি, চিলি

asdfrd

বিশ্বকাপের ৩২ দল এরইমধ্যে চূড়ান্ত হয়ে গেছে। আগামী বছর রাশিয়ায় মূল পর্ব শুরু হবার আগেই একের পর এক ট্রাজেডি দেখেছে ফুটবল বিশ্ব। নেদারল্যান্ড, চিলির মত পরাশক্তিদের বিদায়ের পর সবশেষ চার বারের বিশ্বকাপজয়ী ইতালিও রাশিয়ায় যাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি। এদিকে ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে পেরু।

তবে বাছাই পর্বের 'গণেশ' উল্টে যেতে পারে পেরুর কারণেই। আর তাতে ভাগ্য খুলে যেতে পারে ইতালির।

তবে ইতালিয়ান সংবাদপত্র ‘লিবারো’-এর এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, বিশ্বকাপে শেষ পর্যন্ত না-ও খেলা হতে পারে দক্ষিণ আমেরিকার দল পেরুর। এমনটা ঘটলে, এর জন্য আর কেউ নয়,  দায়ী থাকবে সেদেশেরই সরকার। দেশটির পার্লামেন্টে নতুন একটি বিল উত্থাপন করা হয়েছে। যেটি পাশ হলে ফুটবল ফেডারেশন তাদের স্বায়ত্তশাসন হারাবে।

অথচ ফিফার আইন অনুযায়ী, কোন দেশের ফুটবল ফেডারেশনে সরকারের হস্তক্ষেপ নিষিদ্ধ। এমনটা হলে ওই ফেডারেশনকেই নিষিদ্ধ করে দিতে পারে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

পেরুর সংসদের নারী সদস্য পালোমা নোসেদা চান ফুটবল ফেডারেশনের ওপর নিয়ন্ত্রণ থাকবে ক্রীড়া সংস্থার। এ সংক্রান্ত একটি বিল তিনি উত্থাপন করেছেন সংসদে। এটি পাশ হলে কপাল পুড়বে পেরুর। এতে বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা হারাতে পারে তারা।

সেক্ষেত্রে বিশ্বকাপের বিমানে চড়তে পারে ইতালি। সুযোগ থাকবে চিলি কিংবা নেদারল্যান্ডেরও।

ফিফার সংবিধানের ৭ নম্বর অনুচ্ছেদে বলা আছে, 'যদি কোন সংস্থাকে (বিশ্বকাপের ৩২টি দল থেকে) নিষিদ্ধ করা হয় কিংবা রেস থেকে বাদ দেওয়া হয়, তবে ফিফার সাংগঠনিক কমিটি তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।'

ইতালির সংবাদমাধ্যম টুটোস্পোর্টের বরাতে মিরর অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে পেরু বাদ পড়লে বাছাইপর্ব থেকে ছিটকে পড়া দলগুলোর মধ্য থেকে সবচেয়ে সফল দেশটাকে জায়গা করে দেয়া হতে পারে। এক্ষেত্রে ফিফার র‍্যাংকিংও বিবেচনা করা হতে পারে।

/এসএম