SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১৯-০১-২০২১ ১২:০১:৩৮

খাবার খেয়ে তিনদিনে অজ্ঞান ৩০, সাত বাড়িতে লুটপাট

mym-anesthetic

খাবারে চেতনানাশক মিশিয়ে ও স্প্রে করে অজ্ঞান করে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে তিনদিনে সাত বাড়িতে হানা দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। পরিবারের সদস্যদের অচেতন করে লুট করে নিয়ে গেছে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার। অচেতন হওয়া নারী ও শিশুসহ ৩০ জনের অনেকে এখনো অসুস্থ। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। এদিকে মামলা হলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

গত ১০ জানুয়ারি দুপুরের খাবার ও পিঠা খেয়ে ঈশ্বরগঞ্জের রাজিবপুর ইউনিয়নের রাজারামপুর গ্রামের চানু মেম্বারের স্ত্রী ও দুই সন্তান অচেতন হয়ে যান। সেবা-সুশ্রূষার পর জ্ঞান ফিরলেও রাতে আবারো জ্ঞান হারান তারা। এই সুযোগে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে নগদ প্রায় দেড় লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

একই রাতে দক্ষিণ মাইজহাটি গ্রামের কৃষক রোকন উদ্দিন, মগটুলা ইউনিয়নের নওপাড়া গ্রামের আনসার সদস্য নেছার উদ্দিন, ১১ জানুয়ারি রাজিবপুর ইউনিয়নের বিলখেরুয়া গ্রামের আলিমুদ্দিন মাস্টারের বাড়িতে ৫ জনকে, অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা আবুল খায়েরের পরিবারের ৩ জনকে এবং ১৪ জানুয়ারি মাইজহাটি গ্রামের স্কুল শিক্ষক হাবিবুর রহমান ও ব্যবসায়ী আকরাম হোসেনের বাড়ির শিশুসহ ১৫ জনকে অচেতন করে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। বাড়ির পিছনে ফেলে যায় লবণ, হলুদ ও মরিচের গুড়া।

এদিকে অচেতন হওয়া নারী ও শিশুসহ ৩০ জনের অনেকে এখনো অসুস্থ।

এদিকে স্থানীয়দের সহায়তায় বাইরের কোনো চক্র এই কাজে জড়িত বলে ধারণা জনপ্রতিনিধিদের। আর ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আব্দুল কাদের মিয়া জানান, শিগগিরই জড়িতদের ধরতে পারবো। সেই অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

গত ৩/৪ বছরে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এ ধরনের ২০/২৫টি ঘটনা ঘটলেও একটিরও কোনো কুলকিনারা হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।