SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১৬-০১-২০২১ ১৪:১৭:৩০

কুলিয়ারচরে বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

139

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলাকালে বিএনপি এজেন্টের মারধর ও পুলিশ হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় শনিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে পৌর নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী নূরুল মিল্লাত। 

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহসাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল আলমসহ কুলিয়ারচর বিএনপির নেতাকর্মীরা।

মিল্লাতের অভিযোগ, কুলিয়ারচরে কয়েকটি কেন্দ্রে থেকে বিএনপির এজেন্টেদের বের করে দেওয়ার পাশাপাশি মারধর করা হয়। এ ছাড়া কুলিয়ারচর থানার এসআই আব্দুল আজিজও আমার সঙ্গে অসদাচরণ করেছেন। 

জানা গেছে, সারাদেশের মতো কিশোরগঞ্জের সদর ও কুলিয়ারচরে শুক্রবার (১৬ জানুয়ারি) পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে ২৫ হাজার ১৪৩ জন ভোটার ভোট দিয়ে নেতা নির্বাচন করবেন। নির্বাচনে দুজন মেয়রপ্রার্থী ৪২ জন পুরুষ কাউন্সিলর ১২ জন মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বিএনপির অভিযোগ, নির্বাচন প্রচারণায় কোনো সমস্যা না হলেও গত দুই দিন ধরে নেতাকর্মীদের পুলিশি হয়রানি ও গায়েবি মামলা করে গ্রেফতার করা হচ্ছে। আজ শনিবার সকালে ভোটগ্রহণ শুরুর পর কুলিয়ারচর ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্র থেকে বিএনপির এজেন্টদের বেড় করে দেয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

তালটিয়া মাসকান্দা বিএনপি সমর্থকদের বেড় করে দিয়ে কেন্দ্র দখল নেওয়ার প্রতিবাদে নির্বাচন বর্জনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন নূরুল মিল্লাত। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী সৈয়দ সারোয়ার হোসেন মহসিন এই ঘটনার কথা অস্বীকার করে বিএনপি নির্বাচনে হেরে যাওয়ার ভয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছে বলে জানান।