SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ০২-১২-২০২০ ২১:০৮:০৭

আরও শক্তিশালী হলো ঘূর্ণিঝড় বুরেভি

burovi

দক্ষিণ পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করা ঘূর্ণিঝড় বুরেভি বুধবার মধ্যরাত বা বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) সকালে শ্রীলঙ্কার উপকূলে আঘাত হানতে যাচ্ছে। আঘাত হানার সময় এর বাতাসের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ১০০ কিমি। তবে এ ঘূর্ণিঝড়ের কোনো প্রভাব বাংলাদেশে পড়বে না।

ভারতীয় আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শ্রীলঙ্কা হয়ে তামিলনাড়ুর দিকে এগোবে ঘূর্ণিঝড় বুরেভি। বৃহস্পতিবার প্রথমে শ্রীলঙ্কার উপকূলে আছড়ে পড়বে সেটি। তারপর মান্নার উপসাগর পেরিয়ে তামিলনাড়ু উপকূলে প্রবেশ করবে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে বুধবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত তামিলনাড়ুর দক্ষিণ অংশে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। বৃহস্পতি ও শুক্রবার বৃষ্টি হতে পারে কেরালার দক্ষিণ অংশেও। তাই সতর্কতামূলকভাবে বুধবার থেকে শনিবার পর্যন্ত মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে বারণ করা হয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশের আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বুরেভির কোনো প্রভাব দেশের উপকূলে থাকবে না। কয়েক দিন তাপমাত্রাও অপরিবর্তিত থাকবে। তবে সপ্তাহখানেক পরে শীতের প্রবণতা বাড়বে।

পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে। ভোর থেকে সকাল পর্যন্ত কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

বুধবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ১১ দশমিক আট ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারে ৩২ দশমিক চার ডিগ্রি সেলসিয়াস।

চলতি মাসের শেষার্ধে দেশের উত্তর, উত্তর পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে ১-২টি মৃদু শৈত্যপ্রবাহ (সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) ও মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ (৬-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বয়ে যতে পারে।