SomoyNews.TV

ধর্ম

আপডেট- ২৫-০৩-২০২০ ১৯:৩৯:২০

বাড়ল হজ নিবন্ধনের সময়

haj

এ বছর হজের নিবন্ধন কার্যক্রমের সময় আগামী ৮ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

বুধবার (২৫ মার্চ) এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

এর আগে, করোনা আতঙ্কে কাঙ্ক্ষিত সংখ্যায় হজ নিবন্ধন না হওয়ায় আবারও সময় বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় ধর্ম মন্ত্রণালয়। হজ অনিশ্চিত কিংবা কেউ হজ পালনে অপারগ হলে সব টাকা ফেরত দেয়া হবে বলে জানান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী। 

হজ এজেন্টদের সংগঠন হাবও জানিয়েছে, এ বছর কেউ হজ পালন করতে না পারলে ওই টাকাতেই আগামী বছর হজে যেতে পারবেন।

উল্লেখ্য, হজ ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২ মার্চ থেকে হজযাত্রীদের চূড়ান্ত নিবন্ধন শুরু হয়। প্রথম দফায় ১৫ মার্চ পর্যন্ত নিবন্ধনের সময় দেয়া হলেও করোনার কারণে হজযাত্রা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকায় আগ্রহী অনেকেই নিবন্ধন করেননি। তাই ১০ দিন বাড়িয়ে ২৫ মার্চ পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। কিন্তু করোনা ভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ায় হজ গমনচ্ছেুদের মনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ পর্যন্ত মাত্র ৩৫ হাজার জন নিবন্ধন করেছেন। 

এ পরিপ্রেক্ষিতে আবারো সময় বাড়ানো হলো। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ জানিয়েছেন, নিবন্ধনের নীতি শিথিল করাসহ হজ গমনেচ্ছুরা চাইলে সব টাকা ফেরত কিংবা ওই অর্থে আগামী বছর হজ পালন করতে পারবেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী  বলেন, আমরা নিশ্চয়তার সঙ্গে বলতে চাই, আপনারা নিবন্ধনের জন্য যে সমস্ত টাকা খরচ করবেন, তাদের একটা টাকাও মার যাবে না। যেতে না পারলে যদি আপনারা টাকা ফেরত চান, যখন ফেরত চাইবেন তখনই ফেরত দেয়া হবে।

হজযাত্রীদের আর্থিক কোনো ঝুঁকি নেই জানিয়ে হাব সভাপতি শাহাদাত হোসেন তসলিম বলেন, এজেন্সিগুলোকে এ মুহূর্তে সৌদি আরবে বাড়িভাড়া বা অন্য কোনো খাতে অর্থ খরচ না করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে হজযাত্রীদের অনুমতি নেয়া হবে।

তিনি বলেন, হজযাত্রীদের নিবন্ধনের সম্পূর্ণ টাকা ব্যাংকে ব্লক করা থাকে। হজযাত্রীদের আর্থিক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে এ বছর সৌদি আরবে যাত্রীদের বাড়ি ভাড়া এখনি নিশ্চিত করা হচ্ছে না। সৌদি আরবের পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই বাড়ি ভাড়া করা হবে।

সাধারণত হজের তিন থেকে চার মাস আগে নিবন্ধনসহ আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া শুরু হয়। এ বছর বাংলাদেশ থেকে ১লাখ ৩৭ হাজার জনের হজ পালনে সৌদি আরব যাওয়ার কথা রয়েছে।