SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ২৭-০২-২০২০ ০৬:০০:১২

করোনা ভাইরাসের কারণে হুমকির মুখে টোকিও অলিম্পিক

capture

করোনা ভাইরাসের কারণে হুমকির মুখে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া যজ্ঞ অলিম্পিক্স। আগামী মে মাসের মধ্যে এ ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে না এলে, বাতিল হতে পারে ‘টোকিও অলিম্পিক্স’। এমনই আশঙ্কার কথা জানালেন ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক্স কমিটির সদস্য ডিক পাউন্ড। অন্যদিকে, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করে সময় মতো অলিম্পিক্স আয়োজন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন টোকিও অলিম্পিক্স আয়োজক কমিটি।

করোনা ভাইরাস ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে চীনে। চীনের গন্ডি পেরিয়ে এ ভাইরাসের সংক্রমণ বিশ্বের অন্তত ৩৯টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনার প্রভাবে বিশ্বে এ পর্যন্ত তিন হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। যার অধিকাংশই চীনে। মৃতের সংখ্যা বাড়ছে দক্ষিণ কোরিয়াতেও।

জাপানে করোনার প্রভাবটা যথেষ্ঠ লক্ষণীয়। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে কয়েক হাজার মানুষ। করোনার কারণে জাপানে চার জনের মৃত্যু হয়েছে। এই ভাইরাস আতঙ্কে, জাপানের প্রথম বিভাগ ফুটবল -জে লিগের খেলা বন্ধ রাখা হয়েছে। সেই সাথে মহামারি আকার ধারণ করা করোনা ‘টোকিও অলিম্পিক্সের’ উপরেও প্রভাব ফেলেছে।

আগামী ২৪ জুলাই জাপানের টোকিওতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়াযজ্ঞ অলিম্পিক শুরু হওয়ার কথা। তবে মে মাসের মধ্যে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে না এলে, বাতিল হতে পারে ‘টোকিও অলিম্পিক্স’। এমনই আশঙ্কার কথা জানালেন ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক্স কমিটি।

ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক্স কমিটি’র সদস্য ডিক পাউন্ড বলেন, দেখুন, জাপানে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলে, অলিম্পিক্স বাতিল করতে হবে। কারণ বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ইভেন্ট আয়োজন করতে গেলে, অনেক কিছুই আমাদের পক্ষে যেতে হবে। অ্যাথলিটদের নিরাপত্তা, স্পোর্টস ভিলেজ, হোটেল, সাংবাদিকদের নিরাপত্তা। যদিও কিছুদিন পর আমরা পর্যবেক্ষণ করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবো।

এদিকে, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জরুরী পদক্ষেপ নিয়েছে জাপান সরকার। অলিম্পিক্স মতো বড় আসরে যাতে অ্যাথলিটদের কোনো ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে না হয়, এজন্য অয়োজকরা প্রস্তুতিতে কোনো ঘাটতি রাখবে না।

টোকিও অলিম্পিক আয়োজক কমিটি’র প্রধান নির্বাহী তোসিরো মুতো বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কাজ করছি আমরা। অলিম্পিক্স শুরু হতে কয়েক মাস বাকি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ, আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে পরিকল্পনা অনুযায়ী সবাইকে করোনা মোকাবেলা করতে হবে। আশা করছি, সময়মতো অলিম্পিক শুরু করতে পারবো আমরা।

গেলো অলিম্পিক্সের সময় ব্রাজিলে জিকা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব হলেও, বাতিল হয়নি রিও অলিম্পিক্স।