SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১৯-০২-২০২০ ১৯:০৮:১০

চট্টগ্রাম শহরকে পরিকল্পিত নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে: রেজাউল করিম

rezaul-korim

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হলে চট্টগ্রাম শহরকে পরিকল্পিত নগরী হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী। বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ট্রেন যোগে চট্টগ্রামের পুরাতন রেল স্টেশনে নেমে এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় দলীয় নেতা কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, নেত্রী আমার হাতে মনোনয়ন তুলে দিয়েছেন। আমি শেখ হাসিনার প্রতিনিধি। এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরী সতের বছর চট্টল বাসীর সেবা করেছেন। তখন মডেল সিটি হিসেবে গড়ে উঠেছে চট্টগ্রাম। মাঝখানে পাঁচ বছর সিটি কর্পোরেশন হাতে ছিল না। ২০১৫ সালে হাতে এসেছে। দলের পক্ষ থেকে মেয়র নির্বাচিত হন আ জ ম নাছির। সবাই যেভাবে উন্নয়ন করেছে, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছে, মেয়র নির্বাচিত হলে সেভাবেই উন্নয়নের কাজ করব।

তার আগমন উপলক্ষে সকাল থেকেই নগরীর ৪১টি ওয়ার্ড থেকে নেতা কর্মীরা পুরাতন রেল স্টেশনে উপস্থিত হন। এ সময় তাদের হাতে ছিল ব্যানার ও ফেস্টুন। দুপুর ৩টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা মহানগর প্রভাতী ট্রেন থেকে নেমে ট্রাকের উপর বানানো অস্থায়ী স্টেজে উঠেন মেয়র পদে মনোনয়ন পাওয়া রেজাউল করিম চৌধুরী।

এ সময় তিনি নেতা কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, মেয়র নির্বাচনে জয়ী হলে চট্টগ্রাম পরিকল্পিত নগর হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব, যদি সবাই সহযোগিতা করেন। একজনের পক্ষে নগরের উন্নয়ন করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। সম্মিলিত প্রয়াস দরকার। সকল বুদ্ধিজীবী, সাংবাদিক, পেশাজীবী, প্রকৌশলী, নগর পরিকল্পনাবিদ, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি, প্রগতির পক্ষের শক্তি, বঙ্গবন্ধু আদর্শের সর্বস্তরের জনগণকে ও রাজনৈতিক দলকে সাথে নিয়ে পরামর্শ করে চট্টগ্রামের গৌরব ফিরিয়ে আনতে চাই।

এ সময় তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রাম এক সময় সৌন্দর্যের রানী ছিল। বর্তমানে চট্টগ্রামের সকল পাহাড় ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। কর্ণফুলী নদী দূষিত হচ্ছে। কর্ণফুলী মরে যেতে বসেছে। যদি নির্বাচিত হতে পারি, মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, দুর্নীতিমুক্ত পরিকল্পিত নগরী গড়ে তোলার আশা আছে।

এ সময় মহানগর আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকলে ও ছিলেন না বর্তমান মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন। 

এসময় জাতির পিতাকে স্মরণ করে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম জলাবদ্ধতার অভিশাপে জর্জরিত ছিল। শেখ হাসিনার লালদিঘীর ময়দানে বলেছিলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়ন নিজ হাতে নিলাম। সিডিএকে জলাবদ্ধতা নিরসনে আট হাজার কোটি টাকার যে কাজ দেয়া হয়েছে, বর্তমানে সেই প্রকল্পের কাজ চলছে। তা শেষ হলে জলাবদ্ধতা মুক্ত হবে বন্দর নগরী। এই জন্য যে ধরণের সাহায্য দরকার তা করা হবে বলে জানান আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী।
 
প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের মেয়র পদে মনোনয়ন দেওয়ায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন রেজাউল। এ সময় বীর প্রসবিনী চট্টলার নেতা-কর্মীদের স্মরণ করেন তিনি। এ সময় এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরীর কথা স্মরণ করেন তিনি বলেন, প্রয়াত নেতারা যেভাবে কাজ করেছেন, সেভাবেই নগরীর উন্নয়নে কাজ করা হবে। এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরী যে পথে গেছেন আমি ও সেই পথে যাব।

এ সময় বোয়ালখালী আসনের সাংসদ মোছলেম উদ্দীন চৌধুরী, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুচ ছালামসহ মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।