SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ১৯-০২-২০২০ ০০:৩৪:১২

জয়ের ধারায় শেখ জামাল

bpl-18

প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে জয়ে ফিরেছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। গোপালগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ধানমন্ডি পাড়ার ক্লাবটি। এদিকে, চট্টগ্রামে চমক দেখিয়েছে আরামবাগ। কিংসলের জোড়া গোলে স্বাগতিক চট্টগ্রাম আবাহনীকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তারা।

হার দিয়ে আসর শুরু হয়েছিলো শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের। ফেডারেশন কাপটাও ভাল যায়নি। জয়ের খোঁজে দিশেহারা অভিযাত পাড়ার দলটি। দ্বিতীয় ম্যাচেই প্রতিপক্ষ মুক্তিযোদ্ধা। গোপালগঞ্জে ভাগ্য ফেরানোর আশায় ছিলো শফিকুল ইসলাম মানিকের দল। শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে, শুরু থেকেই হিসেবি হয়ে খেলে শেখ জামাল। ছেড়ে কথা বলেনি ফেডারেশন কাপে দুর্দান্ত খেলা মুক্তিযোদ্ধাও।

দু'দলই বল দখলের লক্ষ্যে লড়াই করেছে সমানে সমান। ৪১ মিনিটে চমতকার সুযোগ এসেছিলো শেখ জামালের। কিন্তু ভাগ্য সহায় হয়নি। জাহিদ হোসেনের বাড়ানো বলে গোল করতে ব্যর্থ হন ওমর জোবে।

তিন মিনিট পর নিজের ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করেন এই গাম্বিয়ান তারকা। গোল করে এগিয়ে দেন শেখ জামালকে। ৪৮ মিনিটে ম্যাচে সমতা ফেরান মুক্তিযোদ্ধার পল এমিলি।

দু'দলই সমতায়। তাই গোলের জন্য হয়েছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। অবশেষে ৭৩ মিনিটে মাঠে স্বস্তি আনেন সলোমন কিং। তার গোলেই আনন্দে নাচে শেখ জামাল সমর্থকরা। বাকি সময়ে ম্যাচে আর কেউ আধিপত্য বিস্তার করতে পারেনি। মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে প্রথম জয়ের স্বাদ পায় শেখ জামাল।

আরেক ম্যাচে চট্টগ্রামে, স্বাগতিকদের মুখোমুখি হয় আরামবাগ। ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে এবার কোনরকমে দল গড়েছে মতিঝিল পাড়ার দলটি। সাদামাটা দল নিয়ে লিগের শুরুটাও হার দিয়ে হয়েছে তাদের। জয়ের আশায় চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে শুরু থেকেই আগ্রাসী হয়ে খেলার চেষ্টা করে জাহিদুর রহমান শীষ্যরা।

৩৭ মিনিটেই কপাল খোলে তাদের। গোল করেন কিংসলে। হতবাক স্বাগতিক সমর্থকরা।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে তাদের আরো হতাশ করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সেই এলিটা কিংসলে।

দুই গোল হজম করা স্বাগতিক সমর্থকদের প্রাণে এক মিনিট পরই স্বস্তি এনে দেন রনি। দ্বিতীয়ার্ধে গা ঝারা দিয়ে ওঠার চেষ্টা কয়েকবারই করেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। কিন্তু আরামবাগের রক্ষণদূর্গ ভাঙ্গতে পারেনি তারা। তুলনামুলক শক্তিশালি চট্টগ্রাম আবাহনীকে হতাশ করে জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়েই মাঠ ছেড়েছে আরামবাগ।