SomoyNews.TV

স্বাস্থ্য

আপডেট- ১৭-০২-২০২০ ০৯:২৯:৫০

করোনা মোকাবিলায় প্রস্তুত ঢাকার পৃথক হাসপাতাল

corona-hospi

করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। কেবল করোনায় আক্রান্তদের জন্য একটি সম্পূর্ণ হাসপাতাল প্রস্তুত রাখার পাশাপাশি বিশেষ ওয়ার্ড স্থাপন করা হয়েছে বেশ কয়েকটি হাসপাতালে।

সরকারের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিশেষজ্ঞরা এখনই মডেল আইসোলেশন কক্ষ নির্মাণের তাগিদ দিচ্ছেন। শুধু ওয়ার্ড নির্ভর প্রস্তুতি থাকলে সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ারও আশঙ্কা করছেন তারা।

করোনা নিয়ে বিশ্বব্যাপী আতঙ্ক বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিনিয়তই নিজেদের প্রস্তুতি বাড়াচ্ছে বাংলাদেশ। এরইমধ্যে প্রায় ৩০টি দেশ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। সিঙ্গাপুরে ৫ জন বাংলাদেশি আক্রান্ত হওয়ার পর আশঙ্কা যেন পিছু ছাড়ছে না বাংলাদেশের।

রাজধানীর সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে খোলা হয়েছে ১৫ শয্যার করোনা ওয়ার্ড। সম্ভাব্য রোগীদের সেবার জন্য প্রশিক্ষণের পাশাপাশি প্রতিদিনই কোনো না কোনো অনুষঙ্গ যোগ হচ্ছে ওয়ার্ডে।

চিকিৎসকরা বলেন, যে কোনো মুহূর্তই যে কোনো রোগীর সন্ধান পেলেই আমরা প্রস্তুত আছি।

আগের রোগীদের সরিয়ে ১০০ শয্যার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল উন্নীত করা হয়েছে ২শ’ শয্যায়। ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি না হলেও আইসিইউর বেড ও ডায়ালাইসিস ইউনিট দ্রুত স্থাপনের কথা নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

তবে ওয়ার্ডের পাশাপাশি নিশ্চিত রোগীর জন্য এখনই আন্তর্জাতিক মানের সম্পূর্ণ পৃথক কক্ষ তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলেন, প্রতিটা রোগীর জন্য আলাদা আলাদা রুম তৈরি করা দরকার। রুমগুলো থেকে যে বাতাস বের হবে সেটাও জীবাণু মুক্ত হতে হবে।

প্রয়োজন অনুযায়ী সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে দাবি আইইডিসিআর এর পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

তিনি বলেন, পুরুষ ও নারীদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

ভাইরাস জাতীয় রোগের সংক্রমণ এড়াতে এখন থেকেই দেশের প্রতিটি হাসপাতালে অন্তত একটি করে আইসোলেশন বেড স্থাপনের পরামর্শ বিশ্লেষকদের।