SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বিনোদনের সময়

আপডেট- ১৬-০২-২০২০ ২১:৫৭:৩৩

মান্না নেই চলচ্চিত্রও নেই: মালেক আফসারী

untitled-1-copy

বাংলা চলচ্চিত্রের প্রয়াত চিত্রনায়ক মান্না। আগামীকাল মান্নার ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী। নায়ক মান্নার মৃত্যুর একযুগ পূর্ণ হলে তাকে আজ ভোলেনি বাংলা সিনেমার দর্শকরা। মান্না সম্পর্কে এখনও জানতে চান তার দর্শকেরা। মান্নার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সময় সংবাদের সঙ্গে কথা বলেছেন নির্মাতা মালেক আফসারী। প্রয়াত এই চিত্রনায়ককে নিয়ে আজকের এই প্রতিবেদন।

মান্না বাংলাদেশের অ্যাকশন চিত্রনায়ক ছিল। সে এদেশের সব ধরনের দর্শকের কাছে পৌঁছে ছিলেন। তার সিনেমা মানেই দর্শকরা হলে যেতেন। একটা প্রতিবাদী রূপ ছিল তার মাঝে। সে হারিয়ে গেল এত তাড়াতাড়ি সেটা সত্যিই অকল্পনীয়। আমরা মান্নার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে পারিনি। কখনও পরবোন। মান্না যেখানেই থাকুক ভালো থাকুক। এভাবেই কথাগুলো বলেছিলেন ঢাকাই সিনেমার মাস্টার মেকার খ্যাত নির্মাতা মালেক আফসারী।

মালেক আফসারী মান্নার স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, মান্নার সঙ্গে আমার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। মান্না একজন সিনেমার নিবেদিত প্রাণ ছিল। কোন ছবিটি চলবে আর ছবি কিভাবে চালাতে হবে সেটি নিয়ে গবেষণা করত মান্না। আজ মান্না নেই চলচ্চিত্রও নেই। মান্না মারা যাওয়ার একযুগ হয়ে গেল। এই ১২ বছর কমপক্ষেও হলে ৪০টি সিনেমা উপহার দিতে পাতো যেগুলো সিনেমা হলে দেখতে দর্শক যেত। 

আবেগপ্রবণ হয়ে মালেক আফসারী বলেন, মান্নার সঙ্গে ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে আমার দেখা হয় সাভারে। সেখানে আমরা তিনটি ছবির সাইনিং করায় অপু বিশ্বাসকে। অনেক কথা হতো মান্নার সঙ্গে, আমরা প্রচুর ঘুরতাম। মান্নাকে আমি বলেছিলাম দেশের বাহিরে গিয়ে হার্টের চিকিৎসা করাতে। কিন্তু সবসময় বলেছে সিনেমার কাজগুলো শেষ করে তারপর যাবো। কিন্তু মান্না যেতে পারল না আর। সবাইকে ফাঁকি দিয়ে পৃথিবী ছেড়ে চলে গেল।

মালেক আফসারী আরও বলেন, আমার স্ত্রী রোজী যখন অসুস্থ ছিল। তখন মান্না সবসময় খোঁজ নিত। কখন কি হতো সবরকমের খবর তার কাছে থাকতো। মান্না সত্যিই মানুষকে নিয়ে ভাবতো। রোজী যখন মারা গেল তখন মান্নাই আমার পাছে ছিল। রোজী মারা যাওয়ার এক বছর পর মান্না মারা গেল। মান্নার ইচ্ছাগুলো আর পূরণ করতে পারলো না।

উল্লেখ্য, ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক মান্না ২০০৮ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মাত্র ৪৪ বছর বয়সে মারা যান।