SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ০৮-০২-২০২০ ১০:৪০:৫৮

ধ্বংসস্তূপে শেষ সম্বল হাতড়ে বেড়াচ্ছেন ওরা

fire-p

আগুনে পুড়ে ছাই হলো রাজধানীর বনানীর টিঅ্যান্ডটি বস্তি। শুক্রবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে শুরু হওয়া এ আগুন ফায়ার সার্ভিসের ২২টি ইউনিটের দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে আসে। ফায়ার সার্ভিসের ধারণা, গ্যাস লিকেজ কিংবা বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে হতে পারে আগুনের সূত্রপাত। তবে আগুনে হতাহতের কোনো তথ্য দিতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস।

প্রত্যক্ষদর্শী আর ফায়ার সার্ভিস জানায়, শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে বনানীর টিঅ্যান্ডটি বস্তিতে সূত্রপাত হয় আগুনের। দাউ দাউ করে জ্বলা আগুন মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে পুরো বস্তি এলাকায়। 

আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের ২২টি ইউনিট। প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় ভোর ৫টার দিকে নিয়ন্ত্রণে আসে আগুন।

লেলিহান সে আগুনে স্বল্প আয়ের এসব মানুষ হারিয়েছে সর্বস্ব, পুড়েছে স্বপ্ন। আগুনের ছাই আর ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ধ্বংসস্তূপে ধূমায়িত হাহাকার নিয়ে খুঁজছেন শেষ সম্বল।

এক ভুক্তভোগী বলেন, আমার চার লাখ টাকা ক্যাশ ছিল, পাশে একটা গোডাউন ছিল, সব শেষ।

এক নারী বলেন, এখানে একটা দোকান ছিল, আমার আর কিছু নাই, এই দোকানটা থেকেই আমার চারটা বাচ্চার লেখাপড়া চলতো।

ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার তৎপরতা নিয়েও অভিযোগ আছে কারো কারো।

তারা বলেন, ফায়ার সার্ভিসের এক গাড়িতে পানি আছে, আরেক গাড়িতে নাই।

তবে অভিযানে অবহেলার কথা অস্বীকার করলেও পানিস্বল্পতা আর সরু রাস্তার কারণে উদ্ধার কাজে বেগ পেতে হয়েছে বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন বলেন, পাম্প চালানোর পর দেখা গেল বারবার ময়লা এসে পাম্প বন্ধ হয়ে যায়, এটা একটা বড় প্রতিবন্ধকতা। গাড়িগুলোও ঠিকমতো এখানে প্রবেশ করতে পারেনি।

আগুনে কোনো হতাহত কিংবা নিখোঁজের খবর পাওয়া যায়নি। 
একই সঙ্গে আগুনের প্রকৃত কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস।