SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ২৭-০১-২০২০ ১৬:৩৮:৪৬

শোকে স্তব্ধ লস অ্যাঞ্জেলস লেকার্স

kobe-bryant-sports

শোকে স্তব্ধ লস অ্যাঞ্জেলস লেকার্স। ব্যক্তিগত হেলিকপ্টার ধসে নিহত হয়েছেন ক্লাবের সাবেক খেলোয়াড় কোবি ব্রায়ান্ট এবং তার কন্যাসহ অন্তত ৯ জন। মাত্র ৪১ বছর বয়সেই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে গেছেন বাস্কেটবল কিংবদন্তী কোবি ব্রায়ান্ট। সর্বকালের অন্যতম সেরা এ বাস্কেটবল খেলোয়াড়ের ক্যারিয়ারের অর্জন নিয়ে থাকছে এবারের প্রতিবেদন।

ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশনের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়দের একজন হিসেবে বিবেচনা করা হয় তাকে। যদিও তর্ক আছে, ভোটাভুটি হলে সর্বকালের সেরাও হয়ে যেতে পারতেন অনায়াসে। কিন্তু সেই সুযোগটা আর মিললো কোথায়?

খেলোয়াড়ি জীবন থেকে ব্যবহার করা শখের হেলিকপ্টারটা অবশেষে আর কথা শুনলোনা কোবি'র। ক্যালিফোর্নিয়ার কালাবাসাসে বিধ্বস্ত হলো কন্যা এবং কোচ সমেত। হারিয়ে গেলেন বাস্কেটবল কিংবদন্তী।

২৩ জানুয়ারি, ১৯৭৮ পেনিসিলভেনিয়া রাজ্যের ফিলাডেলফিয়া শহরে বাস্কেটবল খেলোয়াড় জো ব্রায়ান্টের ঘর আলো করে জন্ম নেন কোবি বিন ব্রায়ান্ট।

এরপর ১৯৯৬ সালে শারলট হরনেটের হাত ধরে আসেন পেশাদার বাস্কেটবল জগতে। সে বছরই এল এ লেকার্সের কাছে বিক্রি করে দেয়া হয় তাকে। পরে পুরো ক্যারিয়ার জুড়ে খেলেছেন এলএ লেকার্সের হয়ে। লস অ্যাঞ্জেলস লেকার্সের আরেক নামই হয়ে গিয়েছিলো কোবি ব্রায়ান্ট। ২০ বছরের খেলোয়াড়ি জীবনে ১৮ বার জায়গা করে নিয়েছিলেন অল স্টার টিমে। আর ১২ বার ছিলেন অল ডিফেন্সিভে।

লেকার্সের হয়ে জিতেছেন ৫টি এনবিএ চ্যাম্পিয়নশিপ। যার মধ্যে ২০০৯ এবং ২০১০এর ফাইনালে টানা দুইবার হয়েছিলেন মোস্ট ভ্যালুয়েবল প্লেয়ার। আর ২০০৮ এ তো পুরো এনবিএ'র এমভিপি'ই ছিলেন কোবি।

এখানেই থেমে থাকেনি ব্রায়ান্টের রাজত্ব। অলস্টার টিমের হয়েও দেখিয়ে গেছেন নিজের মুন্সিয়ানা। ২০০২, ০৭, ০৯ এবং ১১'তে অলস্টার গেম এমভিপি মনোনিত হন তিনি। এছাড়া ২০০৬ এবং ০৭'এ টানা দু বার এনবিএ'র সেরা স্কোরদাতা হয়েছিলেন ব্রায়ান্ট।

ক্লাব ছেড়ে জাতীয় দলের হয়েও ছিলেন একইরকম অপ্রতিরোধ্য। ২০০৮ বেইজিং এবং ২০১২ লন্ডন অলিম্পিক্সে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে স্বর্ণপদক জেতেন এ বাস্কেটবল তারকা। জিতেছেন ফিবা অ্যামেরিকা চ্যাম্পিয়নশিপের গোল্ড মেডেলও।

২০১৬'তে আনুষ্ঠানিক ভাবে তুলে রাখেন নিজের জার্সি জোড়া। বিদায় বলে দেন পেশাদার বাস্কেটবল কোর্টকে। আর তার সম্মানে ৮ এবং ২৪ নম্বর জার্সি দুটোকে প্রত্যাহার করে নেয় এল এ লেকার্স। ইতিহাসে তার আগে এমন সম্মান পান নি আর কোন বাস্কেটবল খেলোয়াড়।

কোর্ট ছাড়লেও পুরষ্কার জেতার নেশা ছাড়তে পারেন নি কোবি ব্রায়ান্ট। ২০১৮ সালে ডিয়ার বাস্কেটবল নামে একটি অ্যানিমেটেড শর্ট ফিল্মের জন্য অ্যাকাডেমি পুরষ্কার জেতেন তিনি।

কিন্তু এবার থামতেই হলো। গুড বাই লেজেন্ড।