SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ০৯-০১-২০২০ ০৩:৫৩:৪৬

শিশু নির্যাতনের হার বেড়েছে ৭০ শতাংশ!

20

২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে শিশু নির্যাতন ও সহিংসতা কমলেও শিশু যৌন নির্যাতনের ঘটনা আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে বলে এক গবেষনা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম বিএসএএফ। তারা বলছেন,  ২০১৮ সালের চেয়ে ২০১৯ সালে শিশু যৌন নির্যাতনের ঘটনা বেড়েছে ৭০.৩২ শতাংশ। এরমধ্যে ধর্ষণের ঘটনা বেড়েছে ৭৬ শতাংশ। প্রতিমাসে শিশু ধর্ষণের গড় ৮৩.৭৫। যা পূর্বের যেকোনো সময়ের চেয়ে আশঙ্কাজনক ও ভয়াবহ।

গতকাল বুধবার (৮ জানুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে ‘শিশু অধিকার পরিস্থিতি, ২০১৯’ তুলে ধরা হয়। সংবাদ সম্মেলনে শিশু অধিকার পরিস্থিতি প্রতিবেদন তুলে ধরেন শিশু অধিকার ফোরামের পরিচালক আবদুছ সহিদ মাহমুদ। 

২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ১৫টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সংবাদ মনিটর করে শিশু অধিকার পরিস্থিতি প্রতিবেদন তৈরি করে। 

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ সালে মোট ৪ হাজার ৩৮১টি শিশু বিভিন্ন ধরনের সহিংসতা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এরমধ্যে ২ হাজার ৮৮টি শিশু অপমৃত্যুর শিকার হয়েছে ও ৪৪৮টি শিশু খুন হয়। প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ১ হাজার ৩৮৩টি শিশু যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে, যা বিগত বছরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি। গড়ে প্রতিমাসে ৩৬৫টি শিশু সহিংসতার শিকার হয়েছে। ২০১৯ এ শিশু হত্যা বৃদ্ধি পেয়েছে ৭.১৮ শতাংশ।

২০১৮ সালে যেখানে শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছিল ৫৭১টি শিশু সেখানে ২০১৯ সালে এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০০৫ এ।

শিশুদের প্রতি যৌন নির্যাতন আশঙ্কাজনকভাবে বাড়লেও সার্বিকভাবে শিশুদের বিরুদ্ধে নির্যাতন ২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে কিছুটা হ্রাস (-৪.০৫ শতাংশ) পেয়েছে। শিশু অপহরণ, নিখোঁজ ও উদ্ধার (-১৪.০২ শতাংশ), শিশু নির্যাতন ও সহিংসতা ( ৩৬.৫২ শতাংশ), অপঘাত বা আঘাত (-৫৮.০১শতাংশ) এবং বাল্য বিবাহের ঘটনা ২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে হ্রাস পেয়েছে (-৩০.৭৭ শতাংশ)। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, ২০১৯ সালে মাত্র ২৪টি শিশু হত্যা মামলা এবং ২৭টি শিশু ধর্ষণ মামলার রায়ের সংবাদ পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ মনিটর করে পাওয়া গিয়েছে।
এটা শিশুদের প্রতি সহিংসতায় বিচারহীনতা এবং বিচারের দীর্ঘসূত্রিতার ইঙ্গিত বহন করে।

সংবাদ সম্মেলনে ইউএনডিপি বাংলাদেশের হিউম্যান রাইটস প্রোগ্রামের জেন্ডার এক্সপার্ট বিথীকা হাসান বলেন, শিশুদের বিরুদ্ধে এমন যৌন নির্যাতনের হার বৃদ্ধি পাওয়াটা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। শিশুর প্রতি সংগঠিত সকল নির্যাতন বন্ধের জন্য সরকার থেকে শুরু করে সাধারণ জনগোষ্ঠী সকল ক্ষেত্রেই একযোগে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।