SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১৩-১২-২০১৯ ১২:৫৭:০০

‘প্রথমে বাবু স্যার, পরে রনি ভাই-জুয়েল কাকা ধর্ষণ করে আমাকে’

bari-rape

বরিশালে ৪র্থ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় তাকে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই ছাত্রীর জীবন ঝূঁকিতে রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

ধর্ষনের ঘটনায় স্কুলের এক শিক্ষকসহ দুই প্রতিবেশী জড়িত বলে দাবি নির্যাতিতা ও তার পরিবারের। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার।

১২ বছরেই প্রসূতি হওয়ায় শারীরিকভাবে দুর্বল ও ভেঙে পড়েছে মন-মানসিকতা। বরিশালের বাকেরগঞ্জের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী সে। নির্যাতিতার অভিযোগ, ওই স্কুলের এক শিক্ষকসহ দুই প্রতিবেশী ধর্ষণ করে তাকে।

১০ ডিসেম্বর তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ভর্তি করা হয় শের-ই বাংলা মেডিকেলের প্রসূতি বিভাগে। এ ঘটনায় মামলা হলেও স্থানীয়দের চাপে প্রকৃত অপরাধীদের আসামি করা যায়নি বলে দাবি স্বজনদের।

নির্যাতনের শিকার মেয়েটি সময় সংবাদকে বলেন, বাবু স্যার আমাকে প্রথমে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এরপর রনি ভাই ও জুয়েল কাকা ধর্ষণ করে অপরিণত বয়সে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় শিশুটির জীবন ঝুঁকিতে রয়েছে বলে জানান চিকিৎসক ড. মৃদুলা কর।

তিনি বলেন, এ বয়সে মা হওয়া তো অবশ্যই ঝুঁকিপূর্ণ। 

ঘটনা তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম। পাশাপাশি ওই শিশুটির চিকিৎসা ব্যয় বহনের দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, তদন্তকাজের সময় তারা আমাদের কাছে এসবের কিছু বলেনি। আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। 

অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার কয়েক মাস পর ২২ আগস্ট বাগেরগঞ্জ থানাথানায় একটি মামলা করেন নির্যাতিতার মা। ওই মামলায় জুয়েল নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়।