SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ৩০-১১-২০১৯ ২১:৩৯:১৫

মাশরাফী কেনো সবার চেয়ে আলাদা, বললেন বাশার

mashrafee-murtoza

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের সপ্তম আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফটে ‘এ প্লাস’ ক্যাটাগরিতে ছিলেন মাত্র ৪ জন বাংলাদেশি। এদের মধ্যে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম এবং মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ প্রথম রাউন্ডেই দল পেয়ে গেলেও মাশরাফীকে দলে নিতে যেনো কারো কোনো আগ্রহই ছিলো না! দেশি ক্রিকেটারদের নিলামের পঞ্চম রাউন্ডে গিয়ে তাকে দলে নেয় ঢাকা প্লাটুন। শেষ পর্যন্ত দল পেলেও মাঠে নিজেকে প্রমাণের দায়িত্বটা ম্যাশেরই।

দীর্ঘদিন ধরে ক্রিকেটের বাইরে আছেন জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক। চলতি বছরে বিশ্বকাপের পর আর মাঠে নামা হয়নি তার। চোটের কারণে শ্রীলঙ্কা সফরেও যেতে পারেননি। এই সময়ে তিনি রাজনৈতিক দায়িত্ব পালন করেছেন। দীর্ঘদিন পর তিনি মাঠে ফিরছেন বিপিএল দিয়ে। আর তাই শঙ্কা একটাই- মাঠে ফিরে পারফরম্যান্স করতে পারবেন তো ঠিকঠাক।

তবে ঢাকা প্লাটুনের কোচ মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন এবং জাতীয় দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমনের পুরো আস্থা আছে তার ওপর।

হাবিবুল বাশার সুমন বলেন, মাশরাফী অনেকদিন ধরে প্রাকটিস করে যাচ্ছে, কেউ জানে না। ফাঁকে ফাঁকে চুপি চুপি করে যাচ্ছে। মাশরাফির বোলিংয়ে অভিজ্ঞতা বলেন বা সামর্থ্য বলেন, কখনো কমেনি। কখনও কমবেও না।

তিনি বলেন, ফিটনেস নিয়ে ও কাজ করছে। আমি কয়েক দিন আগে দেখলাম ওজনটাও কমিয়ে ফেলেছে। প্রায় ১০ কেজি ওজন কমিয়েছে। মনে হচ্ছে, ও খুব সিরিয়াস।’

‘আমি নিশ্চিত যে এই বিপিএলটায় ও খুব ভালো খেলবে। কারণ ওর খেলার আগ্রহটা এখনও মরে যায়নি। অনেকেই অনেক কথা বলে কিন্তু আমি মনে করি, ও এখনও ক্রিকেট খেলতে চায় এবং ও যখন খেলে, সেরাটাই খেলতে চায়। এটাই হল মাশরাফির সঙ্গে বাকিদের পার্থক্য। ওকে যে দল নিয়েছে, আমি মনে করি, তারা খুব ভালো কাজ করেছে। বিপিএলে ও ভালোই খেলবে। এটা আমাদের জন্য খুব ভালো খবর। বিপিএলের পরপরই হয়তো আমাদের সিরিজগুলো শুরু হয়ে যাবে, তখন সুস্থ ও তৈরি মাশরাফীকে আমরা পাব।’

এদিকে কোচ মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন বলেন, পুরো আসর খেলবে বলেই তাকে নেয়া হয়েছে। আমি মনে করি, সে ভালোভাবেই খেলবে। অনেকদিন পরে আজকে প্রথম বল করেছে, ছন্দে একটু সমস্যা ছিলো। তবে এটা কয়েকদিন অনুশীলন করলেই ঠিক হয়ে যাবে। তার থেকে সবচেয়ে বড় পাওয়াটা হলো তার অভিজ্ঞতা। সে গত কয়েকদিন ধরেই নিজ উদ্যোগে অনুশীলন করছে, ওজন কমিয়েছে, ফিট থাকার চেষ্টা করছে।

ঢাকার কোচের দায়িত্বে আছেন সালাহউদ্দিন। এবারের বিপিএলে তিনিই একমাত্র স্থানীয় কোচ। তার অধীনে মাশরাফির নেতৃত্বে ২০১৫ সালের বিপিএলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। শীষ্যকে নিয়ে সালাহউদ্দিনের প্রত্যাশাটাও অনেক।
‘আমার চেয়ে মাশরাফী নিজেই অনেক বেশি অনুপ্রাণিত। সে আজ (শনিবার) থেকে অনুশীলন শুরু করে নাই, অনেক দিন ধরেই ব্যক্তিগতভাবে ফিট হওয়ার জন্য অনেক কিছু করছিল। কেউ হয়তো দেখেনি। শরীরের ওজন অনেক কমিয়েছে। আমার মনে হয়, সে আমার চেয়ে কিংবা আমার দলের চেয়ে বেশি ভালো করার জন্য অনেক বেশি অনুপ্রাণিত।’