SomoyNews.TV

শিক্ষা সময়

আপডেট- ২২-১১-২০১৯ ১৮:১৩:১৬

আরো দুই দাবি বাস্তবায়ন না হলে ক্লাসে ফিরবেন না বুয়েট শিক্ষার্থীরা

buet-today

আবরার হত্যা মামলার অভিযোগপত্রে নাম থাকা ২৬ শিক্ষার্থীকে বুয়েট থেকে স্থায়ী বহিষ্কারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেও, একাডেমিক কার্যক্রমে ফিরছেন না আন্দোলনকারীরা। ৩ দফা দাবির বাকি দুটি বাস্তবায়ন না হওয়াকে, এর পক্ষে যুক্তি হিসেবে তুলে ধরেছেন তারা।

এদিকে, শিগগিরই শিক্ষার্থীদের সব দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়ে, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি আস্থা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন ছাত্রকল্যাণ পরিচালক।

গত ৬ অক্টোবর বুয়েটের হলে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত বুয়েটের বিভিন্ন বিভাগের ২৬ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কারের ঘোষণা দিয়ে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে বুয়েট প্রশাসন।

শিক্ষার্থীদের ৩ দফা দাবির প্রথমটি পুরণে বুয়েট প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তবে বাকি দুটি দাবী পুরোপুরি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত একাডেমিক কার্যক্রমে না যাওয়ার কথা জানিয়েছেন তারা।

শিক্ষার্থীদের ৩ দফা দাবীর অন্যতম সোহরাওয়ার্দী, তিতুমীর ও আহসান উল্লাহ হলের র‌্যাগিং-এ জড়িত শিক্ষার্থীদেরও শাস্তি নিশ্চিত করতে আগামী সপ্তাহে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে বুয়েট প্রশাসন।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানা যায়, কিছু অভিযুক্ত তো পুলিশের হেফাজতে আছে, তদন্ত কমিটির রিপোর্টে আরো কিছু নাম এসেছে যারা বাইরে আছে, তাদেরকে আমরা চিঠি দেবো বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

অন্যদিকে পর্যাক্রমে শিক্ষার্থীদের সকল দাবি পূরণ করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন ছাত্র কল্যাণ পরিদপ্তরের পরিচালক। বুয়েট প্রশাসনের প্রতি আস্থা রেখে একাডেমিক কার্যক্রমে অংশ নেয়ার আহবান জানান তিনি।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের আমরা জানিয়েছি যে আমাদের উপর আস্থা রাখার জন্য। আমরা কাজ করছি, কিন্তু সবকিছু তো একদিনে দৃশ্যমান হবে না।

গত ৬ অক্টোবর বুয়েটের হলে শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে গত ১৩ নভেম্বর মামলা দায়ের করেন আবরারের বাবা। পরে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছিল পুলিশ।