SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২২-১১-২০১৯ ১০:৩৬:৫৮

থামছে না অপরাধ, গজিয়ে উঠছে নতুন নতুন কিশোর গ্যাং

gang-one-up

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর অভিযানে রোধ করা যাচ্ছে না কিশোর গ্যাং গ্রুপের অপতৎপরতা। বরং গড়ে উঠছে নতুন নতুন গ্যাং। একের পর এক অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে উঠে আসছে তাদের নাম। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কিশোরদের অপরাধ প্রবণতা ঠেকাতে সরকারের পাশাপাশি এগিয়ে আসতে হবে পরিবারকে।

হাতিরঝিল এলাকা। রাজধানীবাসীর অন্যতম ঘুরে বেড়ানোর এ জায়গায় আতঙ্কের নাম ১১ থেকে ১৭ বছরের এ কিশোররা।

আজিমপুরের এলাকারও আতঙ্ক শিশু কিশোর। দেয়ালের দিকে তাকালে চোখে পড়ে বিচিত্রসব গ্রাফিতি। স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিনই উত্ত্যক্তসহ নানা অপরাধ করে একদল শিশু কিশোর।

এই এলাকার একজন বাসিন্দা বলেন, প্রায়দিন এখানে এসে আড্ডা মারে। আবার ছিনতাইও করে। মেয়েদের ওড়না ধরেও টান দেয়।

উত্তরায় নতুন একটি গ্রুপ ব্যাচ 69। দেয়ালে যার গ্রাফিতি আঁকা রয়েছে। গ্রুপটি সংগঠিত হয়েছে কয়েকমাস আগে। মূলত এর সদস্যরা একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

উত্তরার বেশ কয়েকটি স্কুলে রয়েছে গ্যাং গ্রুপ। এ বিষয়ে কথা হয় আরও এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে।

সেই শিক্ষার্থী বলেন, ক্লাস সিক্স থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়, চলে আজীবন।

গতবছরের জুলাইয়ে এলাকা দখল নিতে গুলশানে কয়েকজনের ওপর হামলা চালায় গ্যাং বাহিনী ‘ময়লা গ্রুপ’। গ্রুপ প্রধান ময়লা আনোয়ারের নেতৃত্বে হামলায় অংশ নেয় মহাখালীসহ আশপাশের বস্তির বখাটেরা। সূত্র বলছে, বিগত কয়েকবছরে গ্যাং গ্রুপের হামলায় নিহত হয়েছে বেশ কয়েকজন। আহত হয়েছেন অনেকে।

কিশোর অপরাধ কমিয়ে আনতে কাজ চলছে জানিয়ে গোয়েন্দা পুলিশ মশিউর রহমান জানান, সামগ্রিক ভাবে এদের সুপথে আনতে সবাইকে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, ময়লা গ্রুপের প্রধান ১২টা মামলায় বিভিন্ন সময়ে জেলে গেছে। সবাই মিলে কাজ করলে অবশ্যই ঠিক হবে।

সমাজ বিজ্ঞানীরাও বলছেন, একযোগে দায়ীত্ব নিতে হবে রাষ্ট্র, পরিবার ও সমাজকে।

সমাজ বিজ্ঞানী তৌহিদুল হক বলেন, অসামাজিক হওয়ার যে প্রক্রিয়া রাষ্ট্র, পরিবার, সমাজ সবাই করছে।

কিশোরদের বিপথগামিতা ঠেকাতে সামাজিক কর্মকাণ্ডে তাদের সম্পৃক্ত করার ওপর জোর দেন বিশেষজ্ঞরা।