SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২২-১১-২০১৯ ০৩:৫৮:০৬

যুবলীগের ৭ম জাতীয় কংগ্রেস কাল

jubo-coun-copy

আগামীকাল শনিবার শুরু হচ্ছে যুবলীগের ৭ম জাতীয় কংগ্রেস। সংগঠনটির চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী না থাকলেও সম্পাদক পদে লড়ছেন প্রায় ডজন খানেক কেন্দ্রীয় নেতা। তবে যুবলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে নেই তেমন কোনো প্রচারণা। নিরুত্তাপ প্রচারণার পেছনে শুদ্ধি অভিযানের ভয়ে কেউই নিজেকে প্রার্থী ঘোষণা করছেন না। আর চেয়ারম্যান ও সম্পাদক পদে ক্ষমতার ভারসাম্যর দাবি নেতাদের।

সন্ত্রাস দুর্নীতি ও চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে সরকারের শুদ্ধি অভিযানে গত সেপ্টেম্বরে আটক হন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট ও সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। এরপর আটক হন মহানগর উত্তর যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজিব। এ ঘটনায় অভিযানের বিরূপ মন্তব্য করে সমালোচনায় আসেন দলটির চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী।

এরপরই দলের সব ধরনের কার্যক্রম থেকে সরিয়ে দেয়া হয় চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীকে। শুদ্ধি অভিযানও ক্যাসিনো সম্পৃক্তার কারণে দলটির নেতাকর্মীরা অনেকটা নীরব হয়ে যায়। এরই মধ্যে গত ৯ অক্টোবর ঘোষণা করা হয় সম্মেলনটির ৭ম জাতীয় কংগ্রেস।

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীদের যে রকম প্রচারণা থাকার কথা ছিল সেটি দৃশ্যমান নেই। অনেক প্রার্থী বলছেন, শুদ্ধি অভিযানের ভয়ে কেউই সেভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন না।

যুবলীগের ঢাকা মহানগ উত্তরের সিনিয়র সহ সভাপতি জাকির হোসেন বলেন, একটা শুদ্ধি অভিযান চলছে। 

আবার কেউ কেউ বলছেন, সময় সংক্ষেপের কারণে সেভাবে প্রচারণা চালাতে পারেনি প্রার্থীরা।

যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হাসান তুহিন বলেন, আনন্দ উৎসবমুখর পরিবেশে আয়োজন হতে যাচ্ছে। 

তবে উপদেষ্টামণ্ডলী ও মহানগর নেতারা বলছেন, আসন্ন কংগ্রেসে গঠনতন্ত্রে কিছু পরিবর্তনসহ থাকবে চেয়ারম্যান ও সম্পাদকের ক্ষমতার ভারসাম্য।

সাম্প্রতিক সময়ে একের পর এক শুদ্ধি অভিযানে সবচেয়ে বেশি ইমেজ সংকটে পড়ে যুবলীগ। এমন অবস্থায় এবারের জাতীয় কংগ্রেসে থেকে কে আসছেন যুবলীগের নেতৃত্বে সেই দিকেই চোখ এখন নেতাকর্মীদের।