SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ২২-১১-২০১৯ ০৩:১৪:০৪

জামানতের কোটি টাকা নিয়ে উধাও প্রতারক চক্র

fraud-compa-copy

রংপুর নগরীর মূলাটোল থেকে দুই শতাধিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর জামানতের কোটি টাকা নিয়ে রাতারাতি উধাও হয়ে গেছে একটি হায় হায় কোম্পানি। আরডিএফ প্রকল্প নামে ওই প্রতিষ্ঠানটি ১০ হাজার টাকা জামানতের বিনিময়ে এক সপ্তাহের মধ্য এক লাখ টাকা ঋণ দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিপুল অঙ্কের এ টাকা নিয়ে সটকে পড়ে।

সপ্তাহখানেক আগে এই ভবনের একটি ফ্ল্যাটে দারিদ্র্য জয়ের স্বপ্ন দেখিয়ে শুরু হয় আরডিএফ প্রকল্প নামে সংস্থাটির কার্যক্রম। ১০ হাজার টাকার জামানত দিলে এক সপ্তাহ পর এক লাখ টাকার সহজ ঋণ পাওয়ার প্রলোভনে পড়ে অনেকে চার-পাঁচটি ঋণের জন্য ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা জমা দেয় এর পরিচালক পরিচয়দানকারী ফয়সাল হোসেনের কাছে। বৃহস্পতিবার ছিল অনেকের ঋণের টাকা পাওয়ার দিন। কিন্তু এদিন ভোরেই লাপাত্তা হয়ে যায় প্রতারক চক্র।

ভুক্তভোগীরা বলছেন, আজকে ৫০ থেকে ৬০ জন সদস্য এখানে লোনের টাকা তুলতে এসেছি। আমরা অনেকে ৫০ থেকে ৭০ হাজার করে টাকা জামানত দিয়েছি। আজকে আমাদের লোন দেওয়ার কথা থাকলেও এখানে এসে দেখি অফিসে তালা দেওয়া। কোনও স্টাফ নেই আবার তাদের মোবাইলগুলোও বন্ধ। বাড়িওয়ালা এখানে জড়িত আছে। 

রাতারাতি গজিয়ে ওঠা এ প্রতিষ্ঠানের লোকজন ছিল অপরিচিত। বেশিরভাগ মানুষই বাড়ির মালিক ও অবসরপ্রাপ্ত খাদ্য কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলামের আশ্বাসের ভিত্তিতে জামানত জমা দেন। কিন্তু বাড়ির মালিক বলছেন উল্টো কথা।

ভবন মালিক সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমি কিছু জানি না। এখানে কোনও কার্যক্রম শুরু হয়নি। 

প্রতারিতদের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন মহানগর পুলিশের কর্মকর্তা।

রংপুর জেলার কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক শাহিনুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ দিতে বলেছি। তাদের থানায় আসতে বলেছি। অফিস এখন তালাবদ্ধ। 

ভুক্তভোগীরা বলছেন, বাড়ির মালিককে আটক করলে প্রতারক চক্রের সন্ধার পাওয়া যাবে।