SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ২১-১১-২০১৯ ২২:৪৯:৫১

‘পেঁয়াজ’ ছিনতাইয়ের ঘটনায় সুনামগঞ্জে পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ

capture

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ও দরপতনের কারণে পেঁয়াজ সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে ভোক্তারা অতি প্রয়োজনীয় পেঁয়াজ ছাড়াই খালি হাতে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন। ভোক্তাদের দাবি, দ্রুত পেঁয়াজ আমদানি করে সংকট নিরসনের দাবি জানান সরকারের কাছে।
 
 সুনামগঞ্জের প্রত্যন্ত জনপদ দিরাই পৌর এলাকায় মুদি, স্টেশনারি, ভুষিমালেরসহ বিভিন্ন পণ্যসামগ্রীর ৮০০টি দোকান রয়েছে। এসব দোকানের মধ্যে শতাধিক মুদিমালের দোকান রয়েছে। এছাড়া ১৫টি কাঁচামালের দোকান রয়েছে। তারা বিভিন্ন এলাকা থেকে পেঁয়াজ ও বিভিন্ন ধরনের কাঁচামাল কিনে বাজারে পাইকারি দামে বিক্রি করেন।

গতকাল বিকেলে ৭০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রির খবর শুনে দিরাই পৌর এলাকার সেলুন পট্টি এলাকার ৫টি দোকানে ক্রেতারা পেঁয়াজ কেনার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়েন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ পেঁয়াজের দাম না দিয়ে  বেশি পরিমাণে পেঁয়াজ নিয়ে চলে যান। এতে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা ভয় পেয়ে পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ রাখেন। যারা পেঁয়াজের দাম পরিশোধ  না করায় ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ হয়ে পিয়াজ বিক্রি বন্ধ করে দেন। আজ সকাল থেকে পৌর এলাকার অনেক দোকানে পিয়াজ বিক্রি করা হয়নি। এজন্য ভোক্তারা পেঁয়াজ কিনতে না পারায় খালি হাতে ফিরে যান।  

পৌর এলাকার মুদি দোকান মালিকেরা জানান,  পেঁয়াজের দরপতন ও একটি অপ্রীতিকর ঘটনার জন্য তারা পেঁয়াজ আমদানি করছেন না।  

দিরাই বাজার মহাজন সমিতির সাধারণ সম্পাদক ধনি রঞ্জন রায় বলেন, পেঁয়াজের দরপতনের জন্য ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ আমদানি করছেন না। আগামীকাল সিলেট থেকে পেঁয়াজ আসলে সংকট কেটে যাবে। 

দিরাই পৌর সভার মেয়র মোর্শারফ মিয়া বলেন গতকাল একটি অপ্রীতিকর ঘটনার জন্য ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ আনতে সাহস পাচ্ছেন না। তারা বাজার সমিতির সঙ্গে কথা বলেন বিষয়টি সমাধান হলে সংকট কেটে যাবে। যারা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটিয়েছে তাদেও শাস্তির দাবি করেন তিনি।