SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১৯-১১-২০১৯ ০৫:১৬:০৪

বড়ুয়া ভবনের মালিকের লোভে স্বজনহারা ৭ পরিবার

greedy-owner

চট্টগ্রামে বাড়ির মালিকের অতি লোভের কারণে অকালে ঝরেছে সাত সাতটি প্রাণ। চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় বিস্ফোরিত বড়ুয়া ভবনের রুম দুটি ভবন নির্মাণের সময় ছিল না। বছর পাঁচেক আগে বাড়ির সামনের অংশ বাড়িয়ে রাস্তার ওপর করা হয় রুম দুটি। আবার সেখানে রান্নাঘর করে স্থাপন করা হয় গ্যাসের রাইজার। সিডিএ বলছে, নকশা বহির্ভূতভাবে রাস্তার পাশে বাড়ির অংশ বাড়ানোতে এ বিস্ফোরণ।

বিস্ফোরণের আগে গুগল থেকে নেয়া ছবিতে দেখা যায়, চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় বড়ুয়া ভবনের সীমানার দেয়ালটি দেয়া হয় একেবারে রাস্তার উপর। বছর পাঁচেক আগে বাড়ির সামনের অংশ বাড়িয়ে দেয়া হয় সীমানা দেয়ালের সঙ্গে ফলস ছাদ। পরে আলাদা রুম করে রাস্তার উপর রান্নাঘর করে বসানো হয় গ্যাসের রাইজার। ভবনের অংশ বাড়ানোর সময় এলাকাবাসী বাধা দিলেও কাজে আসেনি। আর বাড়ির মালিকের এমন লোভী মনোভাবের কারণে স্বজনহারা হয় ৭টি পরিবার।

নগরীর পাথরঘাটা ওয়ার্ড কমিশনারও স্বীকার করলেন ভবনের অংশ বাড়ানোর কথা।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের কমিশনার ইসমাইল হোসেন বালি বলেন, আজ থেকে ১৫ বছর আগে থেকে এমন ঘর করা হয়েছে।

সিডিএর দাবি, ভবনের সামনে রাস্তার পাশে নিয়ম না মেনে গ্যাসের রাইজার আর সেপটিক ট্যাংক বসানোতেই হয়েছে এ বিস্ফোরণ।

সিডিএর প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ শাহিনুল ইসলাম খান বলেন, এখানকার সব পরিস্থিতিই দুর্ঘটনা ঘটার মতো ছিল।

বিস্ফোরণের পর পুরনো বাড়ির বিভিন্ন অংশে ফাটল সৃষ্টি হওয়ায় ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে ফায়ার সার্ভিস। সরিয়ে নেয়া হয়েছে বসবাসকারীদেরও।

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় ব্রিকফিল্ড রোডের বড়ুয়া ভবনে রোববার (১৭ নভেম্বর) সকালে একটি পাঁচতলা ভবনের সামনে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে বাড়িটির সীমানা প্রাচীরের এক অংশ ধসে পড়ে। এতে দেয়াল চাপা পড়ে মা-ছেলেসহ ৭ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এছাড়া স্কুলশিক্ষিকাসহ অন্তত ২৫ জন আহত হন। দুর্ঘটনার পর ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে সাইনবোর্ড টাঙিয়ে দেয়া হয়েছে। ভবনের সামনে মোতায়েন করা হয়েছে আনসার।