SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ১৭-১১-২০১৯ ১৯:০৩:২১

তেলের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ইরানে বিক্ষোভ

ব-ক-ষ-ভ-উত-ত-ল-ইর-ন

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল ইরান। শনিবার রাজধানী তেহরানসহ কয়েকটি শহরে রাস্তায় নেমে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় আন্দোলনকারীরা। নিরাপত্তা বাহিনী সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হন অন্তত দুইজন। 

এ অবস্থায় নিরাপত্তার স্বার্থে সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে প্রতিবেশী দেশ ইরাক। আইন ভঙ্গ না করতে বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করেছেন ইরানের চিফ প্রসিকিউটর।

বিক্ষোভে উত্তাল ইরান। রুহানি সরকারের পেট্রোলের দাম বাড়ানোর ঘোষণার প্রতিবাদে শনিবার রাজধানী তেহরানে আন্দোলনে নামেন হাজারো মানুষ।

বিক্ষোভকারীরা জ্বালানি মজুদ থাকা একটি গুদামে হামলা চালিয়ে আগুন দিতে গেলে বাধা দেয় পুলিশ। এসময় দু'পক্ষের সংঘর্ষে একজন মারা যান।

এছাড়া, বেহবাহান শহরেও সংঘর্ষে নিহতের খবর পাওয়া গেছে। একই সময় কয়েকটি পুলিশ স্টেশন জ্বালিয়ে দেয় আন্দোলনকারীরা। বিক্ষোভ দমাতে টিয়ারশেল ছোড়ে নিরাপত্তাবাহিনী। এ অবস্থায় আইন না ভাঙতে আন্দোলনকারীদের সতর্ক করেছেন দেশটির চিফ প্রসিকিউটর।

ইরানের চীফ প্রসিকিউটর মোহাম্মদ জাফর মোনতাজেরি বলেন, ইরানের বেশ কিছু জায়গায় সংঘর্ষে হয়েছে। এ ঘটনা মেনে নেয়া যায় না। বিশৃঙ্খলা বন্ধে নিরাপত্তা বাহিনীকে কঠোর হতে হবে।

পেট্রোল থেকে ভর্তুকি তুলে নেয়ার ঘোষণার পর দাম বেড়েছে ৫০ ভাগ। এতে সংকট বাড়বে বলে মনে করছেন সাধারণ মানুষ।

স্থানীয়রা বলছে, তেলের দাম বাড়ছে। কিন্তু আয় বাড়েনি। খুবই দুশ্চিন্তায় আছি।

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি শনিবার বলেছেন, ৭৫ শতাংশ ইরানি বর্তমানে 'চাপের মুখে' জীবনধারণ করছেন এবং পেট্রোলের দাম বাড়ানো থেকে সরকার যে অতিরিক্ত আয় করবে তা ইরানের কোষাগারে না গিয়ে ওই অর্থ জনগণের কাছে পৌঁছাবে।

এর মধ্যেই ইরান ভ্রমণে পর্যটকদের জন্য দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে ইরাক। নিরাপত্তার অংশ হিসেবেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর থেকেই অর্থনৈতিক ভাবে ভুগছে ইরান। এর মধ্যেই সরকারবিরোধী বিক্ষোভে দেশটির নীতি নির্ধারকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। এ অবস্থায় দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে সঙ্কট আরও ঘনীভূত হওয়ার আশঙ্কা সংশ্লিষ্টদের।