SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon প্রবাসে সময়

আপডেট- ১৫-১১-২০১৯ ০১:৩৯:০৫

স্থায়ী বসবাসের জন্য গ্রিন কার্ড দেওয়া শুরু করেছে সৌদি আরব

saudi-green-copy

যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ইউরোপের মতো এবার স্থায়ী বসবাসের জন্য গ্রিন কার্ড দেওয়া শুরু করেছে সৌদি আরব। মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ এই দেশটিতে স্থায়ী বসবাসের জন্য, বিদেশি নাগরিকদের থাকতে হবে বৈধ পাসপোর্ট এবং স্বচ্ছল আর্থিক অবস্থা। সেই সঙ্গে বয়স হতে হবে ২১ বছরের উপরে। 

বিশ্বের শীর্ষ তেল রপ্তানীকারক দেশ সৌদি আরব তাদের জাতীয় অর্থনীতিকে আরো শক্তিশালী করতে, ভিশন টু জিরো থ্রি জিরো বাস্তবায়ন শুরু করেছে। এর অংশ হিসেবে স্থায়ী বসবাসের জন্য, উচ্চবিলাসী বিদেশিদের আকৃষ্ট করতে গ্রীন কার্ড দেয়া শুরু করেছে দেশটি।

প্রবল কট্টর ধর্মীয় রীতিনীতির এই দেশটিতে স্থায়ী বসবাসের জন্য, ইতোমধ্যে ১৯ দেশের ৭৩ জন বিনিয়োগকারী, চিকিৎসক, প্রকৌশলী, ব্যবসায়ী আবেদন করেছেন। এরইমধ্যে চলতি মাসে ৩ বিদেশীকে গ্রীন কার্ড ইস্যু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে গাল্ফ নিউজ।

গণমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, গ্রীন কার্ডধারী ব্যক্তিরা সৌদিতে ব্যবসাসহ সব ক্ষেত্রে অবাধ সুবিধা পাবেন। তবে দেশটিতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ধারণা, গ্রিন কার্ডধারীদের নিজ দেশের নাগরিকদের মত পূর্ণাঙ্গ সুবিধা নাও দিতে পারে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

সৌদি প্রবাসীরা বলছেন, গ্রিনকার্ড পাওয়ার পর ইউরো, অমেরিকা, কানাডা তারা যেরকম সুবিধা দিচ্ছে সেরকম সুবিধা কী আমরা পাবো। 

এটি এখন প্রাথমিক অবস্থায় আছে, অনেক প্রবাসী আছে সৌদিতে যাদের এ ধরনের গ্রীন কার্ড নেওয়ার সামর্থ আছে, তবে এখনি তারা এ জন্য আবেদন করছেন না, দেশটির সার্বিক অবস্থা পর্যালোচনা করে নিজেদের মনপুত হলে তবেই তারা হয়তো এ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন

প্রবাসীরা বলছেন, সুযোগ সুবিধার বিষয়টি নিশ্চিত হলেই, গ্রীন কার্ডের জন্য তারাও আবেদন করবেন।

প্রাবাসীরা বলছেন, আমরা যারা প্রবাসী আছি আমরাও আবেদন করব। 

সৌদি কর্তৃপক্ষের শর্ত অনুযায়ী গ্রীন কার্ড পেতে হলে, বিদেশীদের বৈধ পাসপোর্ট এবং আর্থিকভাবে স্বচ্ছল হতে হবে। একইসঙ্গে আবেদনকারীর বয়স হতে হবে ২১ বছরের বেশি।

চলতি বছরের মে মাসে সৌদি কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দেয়, এককালীন ৮ লাখ সৌদি রিয়াল বা ২ কোটি টাকার বিনিময়ে দেশটিতে প্রবাসীরা স্থায়ীভাবে বসবাস করতে পারবেন। আর ১ লাখ রিয়াল বা ২৩ লাখ টাকার বিনিময়ে বাৎসরিক নবায়নযোগ্য গ্রীনকার্ড নেওয়া যাবে।