SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১১-১১-২০১৯ ১৭:৪৩:৫২

সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব আইনের খসড়া অনুমোদন

-cabinet-meeting

বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব (সংশোধন) আইন ২০১৯’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এছাড়াও চুক্তিতে নিয়োগপ্রাপ্তদের জন্য আলাদা বিধান যুক্ত করার প্রস্তাব করা হয়েছে।  

সোমবার (১১ নভেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার সাপ্তাহিক বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।

পরে বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, জনগণের জীবনমান উন্নয়ন, আর্থ-সামাজিক অগ্রগতি ত্বরান্বিত করা এবং অবকাঠামো গড়ে তোলার লক্ষে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার মধ্য দিয়ে বেসরকারিখাতের সঙ্গে অংশীদারিত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে ‘বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব আইন, ২০১৫’ তথা ‘পিপিপি আইন’ প্রণয়ন করা হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, পিপিপি আইনের বাস্তবায়ন পর্যায়ে লব্ধ অভিজ্ঞতার আলোকে আইনে কতিপয় সংশোধন আবশ্যক হওয়ায় এটি সংশোধন করা হয়েছে।

এরমধ্যে, বোর্ড অব গভর্নরস-এর সভা বছরে অন্তত ছয়টি অনুষ্ঠিত হবে বলে আইনে উল্লেখ রয়েছে। বছরে ছয়টি সভা আয়োজন সময়সাপেক্ষ এবং সভাপতিসহ সদস্যদের সার্বক্ষণিক ব্যস্ততার কারণে তা সম্ভবপর হয়ে ওঠে না। এই পরিপ্রেক্ষিতে প্রস্তাবিত আইনে বোর্ড অব গভর্নরস-এর সভার সংখ্যা বছরে ছয়টির স্থলে একটি করার প্রস্তাব করা হয়েছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

পিপিপি কর্তৃপক্ষের বোর্ড অব গভর্নরস-এর প্রথম সভায় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী বোর্ড গঠন করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, নির্বাহী বোর্ডের গঠন, দায়িত্ব ও সভা অনুষ্ঠান সংক্রান্ত বিষয়াদি বিদ্যমান আইনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালসহ মন্ত্রিপরিষদের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বৈঠকের আলোচনার বিষয় সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন।