SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১০-১১-২০১৯ ২১:২৫:৫২

সোমবার ভোর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সব নৌযান

bulbul-sadar-2

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে নদীপথ পুরোপুরি শান্ত না হওয়ায় সোমবার (১১ নভেম্বর) ভোর পর্যন্ত সদরঘাট থেকে ছেড়ে যাবে না কোনো নৌযান। এতে ভোগান্তি বেড়েছে নদীপথে যাতায়াত করা ২২ জেলার মানুষের। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পড়েছে রাজধানীর জনজীবনেও। স্থবির ছিল নগরীর সড়কগুলো।

রোববার সন্ধ্যার সদরঘাট। পন্টুন জুড়ে বিপাকে পড়া দেশের ৪৩ নৌরুটের শতশত যাত্রী। বারবার ফিরে যেতে মাইকে ঘোষণা হচ্ছে, তবুও নাছোড়বান্দা বাক্সপেট্রা নিয়ে যাত্রা শুরু করা এসব মানুষ।

যাত্রীরা বলেন, কর্মতাগিদে আমাদের বাড়ি যেতে হয়। আমরা এখন যেতে পারছি না। এমন দুর্ভোগ ৩ দিন ধরে। দূর গন্তব্য থেকে যারা এসেছেন তাদের ভোগান্তির মাত্রা যেন আরও বেশি।

যদিও দুপুর থেকেই মহাবিপদ সংকেত তুলে ২ নম্বর সতর্কতা সংকেত জারি অভ্যন্তরীণ নৌরুটে। তারপরও নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণার কারণকে বাড়তি সতর্কতা বলছে কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা নদীবন্দরের যুগ্ম পরিচালক কে এম আরিফ উদ্দিন বলেন, মেঘনা নদীতে রোলিং হচ্ছে। যে কারণে যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য অপেক্ষা করছি। 

সরাসরি আঘাত না হানলেও ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাব নগড়জুড়ে। সড়কে ছিল না যানবাহন বা কর্মচাঞ্চল্য।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ঢাকায় থেমে থেমে বৃষ্টি হয়। তাপমাত্রা নেমে আসে ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে