SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ০৯-১১-২০১৯ ২০:২৪:৫৯

অযোধ্যা রায়কে বার্লিন প্রাচীর পতনের সঙ্গে তুলনা করলেন মোদি

modi

অযোধ্যা রায়কে ভারতের ইতিহাসে স্বর্ণিল অধ্যায় বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শনিবার (০৯ নভেম্বর) রায় ঘোষণার পর জাতির উদ্দেশে ভাষণে নরেন্দ্র মোদি বলেন, অযোধ্যা বিবাদের প্রভাব অনেকগুলি প্রজন্মের উপরে পড়েছে ঠিকই। কিন্তু এ বার নতুন প্রজন্মকে নতুন ভারত গড়ার দিকে এগোতে হবে। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে চলতে হবে। এই রায়কে তিনি বার্লিন প্রাচীর ভেঙে দুই জার্মানির একত্রিকরণের সঙ্গে তুলনা করেন।

তিনি বলেন, আজ ৯ নভেম্বর কারতারপুর করিডরের উদ্বোধনও ভারত-পাকিস্তান মিলে করল। আজ ৯ নভেম্বর। এই তারিখেই বার্লিনের প্রাচীর ভেঙে দেওয়া হয়েছিল। দুই বিপরীত ধারা এক সঙ্গে মিলে গিয়েছিল।

রায় দেয়াটা একেবারেই সহজ ছিলো না উল্লেখ করে মোদী বলেন, সর্বোচ্চ আদালতের আজকের রায় দেশকে এই বার্তাও দিয়েছে যে, কঠিন থেকে কঠিনতর সমস্যার সমাধানও সংবিধানের অধীনেই সম্ভব।

ভারতের বিচারবিভাগের ইতিহাসে এই দিনটাকে স্বর্ণালি অধ্যায় উল্লেখ করে নরেন্দ্র মোদি বলেন, বিচারপতিরা সব পক্ষের কথা শুনেছেন। এবং রায়ও সর্বসম্মতির ভিত্তিতেই হয়েছে। আদালতের রায় খোলা মনে মেনে নিয়েছে গোটা দেশ। বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য-এই মন্ত্র আজ নিজের পূর্ণতায় বিকশিত হয়ে দেখা দিয়েছে।

তিনি বলেন, আজ বিশ্ব দেখে নিল ভারতের গণতন্ত্র কতটা মজবুত এবং জীবন্ত। গোটা বিশ্ব জানে, ভারত পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গণতন্ত্র।তাই হয়েছে, আর আজ রায়ও এসেছে। গোটা দেশের ইচ্ছা ছিল আদালতে এই মামলার রোজ শুনানি হোক।

শনিবার সকালে ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ সর্বসম্মতিক্রমে রায় ঘোষণা করেন। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে জায়গাটিতে হিন্দুদের রামমন্দির নির্মাণের পক্ষে সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে। অন্যদিকে মুসলমানদের বাবরি মসজিদ নির্মাণের জন্য আলাদা ৫ একর জায়গা বরাদ্দ দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অযোধ্যার ওই জায়গাটিতে এত দিন মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকেরা বাবরি মসজিদের ও হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকেরা রামের জন্মস্থানের দাবি করে আসছিল। শনিবার দেয়া রায়ে বিষয়টির নিষ্পত্তি হয়েছে।