SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ০৭-১১-২০১৯ ১৮:২৪:২৯

দৃষ্টিহীন সুদীপের নীরব প্রতিবাদ

shudip

বিচারক হওয়ার স্বপ্ন ভেঙে গেলো দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সুদীপ দাসের। শ্রুতি লেখকের সহায়তায় পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ চেয়ে আবেদনে সাড়া দেননি হাইকোর্ট ও জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশন। সুদীপ জানায়, প্রতিবাদ স্বরূপ দ্বিতীয় বারের মত পরীক্ষায় অংশ নেবেন তিনি।

দৃষ্টিশক্তি নেই। কিন্তু স্বপ্ন দেখতে তো বাঁধা নেই! সুদীপ দাশ তাই স্বপ্ন দেখেছেন বিচারক হওয়ার। শ্রুতি লেখকের সহায়তায় পরীক্ষা দিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি-এলএলএম পাশ করেছেন। কিন্তু স্বপ্নের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে খোদ আইন।

শ্রুতি লেখকের সহায়তা বিচারক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেয়ার আবেদন করেও সাড়া পাননি। হাইকোর্টও এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চাননি। সুদীপ দাশ জানান, শুক্রবারের পরীক্ষায় অংশ নেবেন তিনি। প্রতিবাদ জানিয়ে জমা দেবেন সাদা খাতা।

সুদীপ দাশের বোন প্রিয়াঙ্কা দাশ বলেন, আমার ভাইয়ের তাহলে এতদিন কেনো এলএলএম কেনো পড়লো। এখন যদি সে তার একটা ক্যারিয়ার গড়তে না পারে।

সুদীপ দাশ বলেন, পরীক্ষায় কিছুই হয়তো লিখতে পারবো না, নামটা তো লিখতে পারবো। এটা একটা নীরব প্রতিবাদ হয়ে থাকুক।

তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট কুমার দেবুল দে বলছেন, সুদীপসহ দৃষ্টি প্রতিবন্ধীরা যাতে বিচারক হওয়ার সুযোগ পান, সে লড়াই চলবে।

তিনি বলেন, আমরা আবার বিধি চ্যালেঞ্জ করবো। আর আমাদের মূল মামলাটা এখনো নষ্ট হয়ে যায়নি। সেটা আমরা আউট অব লিস্ট করে নিয়ে এসেছি। আমরা অন্য কোর্টে যাবো।

পাবলিক সার্ভিস পরীক্ষায় শ্রুতি লেখকের সহায়তায় লিখতে পারেন দৃষ্টি প্রতিবন্ধীরা। এছাড়া ভারত,পাকিস্তানসহ বিশ্বের অনেক দেশে অন্ধ বিচারকও রয়েছেন।