SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon প্রবাসে সময়

আপডেট- ০৩-১১-২০১৯ ১৪:২২:২৪

বাংলাদেশে বিপুল পরিমাণ বিনিয়োগে আগ্রহী ফ্রান্সের ব্যবসায়ীরা

bangladesh-france

তথ্যপ্রযুক্তিসহ নানা ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্যের পাশাপাশি দেশে চলমান উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রাকে প্রাধান্য দিয়ে ফ্রান্সের সিনেট ভবনে একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে এখন বিনিয়োগের উপযুক্ত পরিবেশ বিদ্যমান বলে জানান বক্তারা।   

২১ অক্টোবর সোমবার বিকেলে ফ্রান্স বাংলাদেশ ইকোনমিক ফোরামের আয়োজনে ফ্রান্সের সিনেট ভবনে একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড এ কে আব্দুল মোমেন ও ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসেনসহ অনেকে। 

এসময় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী নারীর উন্নয়ন, জলবায়ু পরিবর্তন ও তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়নের কথা তুলে ধরে বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন ও সম্ভাবনাময় নানা খাতে ফ্রান্সের বড় কোম্পানিগুলোকে বিনিয়োগের আহ্বান জানান । এছাড়া রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ অন্যান্য দেশগুলো মায়ানমার সরকারের উপর চাপ প্রয়োগ করছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেন, 'ফ্রান্সে আজকে আমাদের সফর ভাল হয়েছে। আমাদের দুটা উদ্দেশ্য ছিল। তার মধ্যে একটি বাংলাদেশে বিনিয়োগ। আমরা আমাদের রফতানি আরো বাড়াতে চেই। সেই সঙ্গে এই দেশ থেকে আমরা অধিকতর বিনিয়োগ চাই। এই বিষয়ে আমাদের ভাল আলোচনা হয়েছে। এখন ফ্রান্স সরকারের সংশ্লিষ্টরা বলছেন বাংলাদেশে ফ্রান্সের একটি স্পেশাল ইকোনোমিক জোন প্রতিষ্ঠা করবেন। এতে বাংলাদেশের অনেক উপকার হবে। আমার মনে হয় এই বিষয়ে আমরা যথেষ্ট অগ্রগতি অর্জন করেছি। আমরা একাধিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলেছি। এছাড়া এখানকার মন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। ব্যবসা বাড়ানোর জন্যে তারা আবার বাংলাদেশ সফর করবেন।' 

এছাড়া রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে  ড এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, 'আমাদের আরেকটি বড় ইস্যু ছিল রোহিঙ্গা সমস্যা। ১১ লক্ষ রোহিঙ্গাদের নিয়ে আমরা বড় সমস্যায় আছি। আমরা তাদের ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করছি। মিয়ানমার তাদের নিতে রাজি আছে তবে এখনো নেয়নি। রাখাইনে যে পরিবেশ দরকার তা এখনো হয়নি। তাই আমরা মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে অনুরোধ করেছি।'

এছাড়া জলবায়ু সমস্যা নিয়ে তিনি বলেন, 'জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে ফ্রান্স এবং বাংলাদেশের একই মত। এই বিষয়ে আমরা যৌথভাবে কাজ করবো অঙ্গীকার করেছি।'   

এদিকে, বাংলাদেশে সম্ভাবনাময় বিদেশি বিনিয়োগের পরিবেশ বিরাজ করায় বিনিয়োগে তাদের আগ্রহের কথা জানালেন ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসেন।

তিনি বলেন, 'আজ ফরাসি সিনেটে ফ্রান্স-বাংলাদেশের ইকোনোমিক ফোরামের বৈঠক অনুষ্ঠিত হলো। এখানে আমরা দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরো কিভাবে বাড়ানো যায় বিশেষ করে বাংলাদেশে ফরাসি বিনিয়োগ কিভাবে বাড়ানো যায় সে বিষয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশে যে সম্ভাবনাময় বৈদেশিক বিনিয়োগের পরিবেশ রয়েছে সেটা অনুধাবন করে ফ্রান্সের বিভিন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রলাশ করেছে। আমি মনে করি দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো ভালো হবে।'

পরে বাংলাদেশের বিনিয়োগ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা তথ্যচিত্রের মাধ্যমে বাংলাদেশে বিনিয়োগের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা উপস্থাপন করেন। পাশাপাশি বাংলাদেশে বিনিয়োগের নানা প্রতিবন্ধকতা এবং সেগুলো কিভাবে দূর করা যায় সেই  বিষয়টিও তুলে ধরেন সেমিনারে অংশগ্রহণকারী বিদেশি বিনিয়োগকারীরা।