SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ১১-১০-২০১৯ ০১:০৭:০৬

হারেও বাংলাদেশের সেরা পারফরম্যান্স

bd-post-copy

ম্যাচ হারলেও, বাংলাদেশ মাঠে ৯০ মিনিট সমান তালে খেলেছে। যা এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সেরা পারফরম্যান্স। এমনটাই মনে করেন বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে। অধিনায়ক জামাল ভূইয়ার মতে, ম্যাচে পাওয়া সুযোগগুলো নষ্ট না করলে জয় পাওয়া সম্ভব ছিল। আর কর্দমাক্ত মাঠে ইনজুরি ছাড়া পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে ফিরতে পেরে স্বস্ত্বির কথা জানিয়েছেন কাতার কোচ ফেলিক্স সানচেজ।

ফেভারিট কাতার আর স্বাগতিক বাংলাদেশ। মাঠে উপস্থিত হাজারো দর্শক। জামাল ভূইয়াদের সমর্থন দিতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম পূর্ণ লাল সবুজ সমর্থককে। নতুন একটা ইতিহাস লেখার সুযোগ ছিল বাংলাদেশের সামনে।

কর্দমাক্ত মাঠে ম্যাচের শুরু থেকে অবশ্য সমান তালে লড়াই করেছে বাংলাদেশ। ল্যাতিন গড়ানার ফুটবল খেলা কাতার যদিও গুছিয়ে নিয়েছে নিজেদের। ২৯ মিনিটে প্রথম গোল হজম করলেও, সুযোগটা বাংলাদেশ পায় ম্যাচের ৩৭ মিনিটে। কিন্তু ভাগ্য সহায় হয়নি স্বাগতিকদের। আর তাতেই কপাল পোড়ে। অধিনায়ক অবশ্য বলছে সুযোগগুলো হাতছাড়া না হলে গল্পটা লেখা হতো ভিন্নভাবে। তবে হরলেও, দলের পারফরম্যান্স নিয়ে সন্তুষ্ট বাংলাদেশ কোচ।


বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে বলেন, ম্যাচে হার জিত থাকবে। তবে বাংলাদেশ আমার দেখা সেরা পারফরম্যান্স করেছে। ৯০ মিনিট ওরা মাঠে সমান তালে খেলেছে। প্রত্যাশা থাকবে সামনের ম্যাচগুলোতে এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে।

বাংলাদেশ ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূইয়া বলেন, একটু কনফিউস ছিল। নিজেদের মধ্যে সামান্য ভুলবোঝাবুঝি হয়েছে। 

গেলো ছয় ম্যাচে মাত্র ১টি জয় পাওয়া কাতার এদিন তৃষ্ণার্ত ছিল বড় একটি জয়ের। তবে ২-০ গোলের জয়ে একেবারে হতাশ নয় মধ্য প্রাচ্যের দলটি। আবহাওয়ার আর মাঠ নিয়ে কিছুটা অসন্তোষ থাকলেও এই জয়ে স্বস্ত্বির সুর কাতার কোচের কন্ঠে।

কাতার দলের কোচ ফেলিক্স সানচেজ বলেন, আবহাওয়ার মাঠ কোনটাই খেলার উপযুক্ত ছিল না। তারপরও ফুটবলাররা ব্যাক্তিগত পারফরম্যান্সে দারুণ খেলেছে। তাই আমরা জিততে পেরেছি। তাছাড়া এমন কর্দমাক্ত মাঠে কোন ইনজুরি ছাড়া পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে ফিরতে পারাটা সত্যি স্বস্ত্বির।

দিন শেষে জয়ী দলের নাম কাতার। তবে এই ম্যাচটা দেশের ফুটবলে একটা নতুন বার্তা দিয়ে রেখেছে। ভাল খেললে দর্শক ফিরবে মাঠে। সুদিন ফিরবে বাংলাদেশের ফুটবলে।