SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১০-১০-২০১৯ ১৬:৪৭:৪০

আবরার হত্যায় গ্রেফতার মোট ১৬

3

আবরার হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত মোট ১৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এজাহারভুক্তদের মধ্যে গ্রেফতার হয়েছে: মেহেদী হাসান রাসেল, মো. অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মো. মেহেদী হাসান রবিন, মো. মেফতাহুল ইসলাম জিওন, মুনতাসির আলম জেমি, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির, মো. মুজাহিদুর রহমান,  মুহতাসিম ফুয়াদ, মো. মনিরুজ্জামান মনির,  মো. আকাশ হোসেন ও হোসেন মোহাম্মদ তোহা।

এজাহার বহির্ভূত হলেও গ্রেফতার হয়েছে: ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, অমিত সাহা, মো. মিজানুর রহমান ওরফে মিজান ও শামসুল আরেফিন রাফাত।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) আবরার হত্যাকান্ডের বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে ব্রিফিংকালে এ তথ্য জানান ডিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও সিটিটিসি প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)।

এসময় তিনি বলেন, এজাহার দায়েরের আগেই মোট ১০ জনকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়েছে। পরদিন ওই ১০ জনকে আদালতে হাজির করে আমরা পাঁচ দিন করে রিমান্ড পেয়েছি। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। পাশাপাশি এজাহার দায়েরের পরে আমরা আমাদের তৎপরতা অব্যাহত রেখেছি। ফলে এজাহার দায়েরের পর আরও পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রোববার (৬ অক্টোবর) দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফাহাদকে শেরে-ই-বাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সোমবার (৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ছিল।

আবরার ফাহাদ বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের লেভেল-২ এর টার্ম ১ এর ছাত্র ছিলেন। তিনি শের-ই-বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। তার বাড়ি কুষ্টিয়া শহরে। কুষ্টিয়া জেলা স্কুলে তিনি স্কুলজীবন শেষ করে নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন।