SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ০৯-১০-২০১৯ ১৭:৪১:৪৭

নারায়ণগঞ্জে গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ

dead-body

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে সাহেলা আক্তার (২৫) নামে এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) দিনগত মধ্যরাতে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী মোবারক হোসেন (৩৫) পলাতক রয়েছে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোরে গৃহবধূর বাবা তার মেয়ের গলাকাটা লাশ খাটের উপর পড়ে থাকতে দেখেন। পরে পুলিশে খবর দিলে গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

নিহত সাহেলা আক্তার আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পৌরসভার উত্তরকলা গাছিয়া এলাকার হাসেম আলীর মেয়ে। অভিযুক্ত স্বামী মোবারক হোসেন নরসিংদী জেলার মাধবদি থানার খাদিমার চর এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে। বিয়ের পর থেকে স্ত্রী পরিবার নিয়ে আড়াইহাজারে শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করছেন। তাদের দাম্পত্য জীবনে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

নিহত সাহেলার পরিবারের দাবী, তার স্বামী তাকে মঙ্গলবার দিনগত রাত ১০টা থেকে ১টার মধ্যে যেকোনো সময় নিজের শোবার ঘরের খাটে ঘুমন্ত অবস্থায় গলার শ্বাসনালী কেটে হত্যা করে পালিয়ে গেছে।

নিহত সাহেলার বোন পারভীন আক্তার জানান, বিয়ের পর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে নানা বিষয়ে মনোমালিন্য চলছিল। বিভিন্ন সময় সাহেলাকে মারধর করা হতো। স্বামী মোবারক দীর্ঘদিন ধরেই সাহেলাকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল। এর জের ধরেই সাহেলাকে তার স্বামী মোবারক হত্যা করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

গোপালদী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নাসির আহমেদ লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধারণা করা হচ্ছে নিহতের স্বামী হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারেন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলাসহ আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।