SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২৮-০৯-২০১৯ ০৭:০০:৫২

চট্টগ্রামে ‘বড় ভাইদের’ নেতৃত্বে সক্রিয় কিশোর গ্যাং

cmp-gang

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে কথিত ৫০ বড় ভাইয়ের নেতৃত্বে নানা ধরনের অসামাজিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ৩০টির বেশি কিশোর গ্যাং। এর মধ্যে কয়েকটি গ্রুপের কাছে রয়েছে পিস্তল এবং রিভলবারের মতো অস্ত্র। আর নগরীতে এসব কিশোর গ্যাংয়ের তিনশোর বেশি আড্ডাস্থল রয়েছে। পুলিশের কিশোর গ্যাং তালিকায় উঠে এসেছে এসব তথ্য। আর কিশোর গ্যাংগুলোর বেপরোয়া আচরণ ঠেকাতে সাঁড়াশি অভিযানে নামতে যাচ্ছে পুলিশ প্রশাসন।

কয়েকদিন ধরেই নগরীর অলিগলি থেকে শুরু করে ঘুরে বেড়ানোর স্থান-সব জায়গায় এখন উঠতি কিশোর গ্যাংয়ের দাপট। শুধু জাকির হোসেন রোডের খুনের ঘটনা নয়। কয়েক মাসে এ ধরনের কিশোর গ্যাংয়ের দ্বন্দ্বে প্রাণ হারিয়েছে ৫ জন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ-বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. ফরিদ আহমেদ বলেন, রাজনৈতিক প্রভাবেই কিন্তু এগুলো ব্যাপক আকার লাভ করছে। তার মধ্যে সাইক্লোজিক্যাল যে পরিবর্তন সেটাও একটা বিষয়।

কিশোর গ্যাংয়ের দাপট কমাতে এ অবস্থায় গ্রুপগুলোর তালিকা তৈরির কাজ শুরু করে সিএমপি। নগরীর ১৬টি থানা এলাকায় ৫০ জনের মতো কথিত বড় ভাইয়ের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকা এসব বড় ভাই তাদের নিজেদের আধিপত্য বজায় রাখতে কিশোর গ্যাংগুলোকে সংগঠিত করছে বলে তথ্য রয়েছে পুলিশের কাছে।

সিএমপি কমিশনার মো. মাহবুবর রহমান বলেন, কিশোর গ্যাংদের চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের যারা প্রশ্রয় দেন তাদেরকেও আমরা তালিকার মধ্যে এনেছি। আমরা কাউকেই ছাড় দেব না।   

তালিকা অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি কিশোর গ্যাং রয়েছে চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ, বায়েজীদ এবং খুলশী এলাকা নিয়ে গঠিত সিএমপির উত্তর জোনে। এখানে অন্তত ১২৫টি আড্ডাস্থল রয়েছে। এরপর কোতোয়ালি, সদরঘাট, চকবাজার এবং বাকলিয়া নিয়ে গঠিত দক্ষিণ জোনে রয়েছে ১০৫টি আড্ডাস্থল।

সিএমপির উপ-কমিশনার এস এম মেহেদী হাসান বলেন, দক্ষিণ জোনে যে সকল স্থানে উঠতি বয়সের ছেলেরা আড্ডা দেয় আমরা সেখানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে যাচ্ছি।

সম্প্রতি নানা অপরাধের দায়ে ৩ জন কথিত বড় ভাই এবং ২০ জনের বেশি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য গ্রেফতার হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ছাড়া পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে আরেক কথিত বড় ভাই।