SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১৮-০৯-২০১৯ ০২:২৯:০৬

দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে ব্যস্ত মানিকগঞ্জের শিল্পীরা

manik-puja

মানিকগঞ্জে দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন ঢাক-ঢোলসহ বাদ্যযন্ত্র তৈরির সঙ্গে জড়িত শিল্পীরা। তবে কাঁচামালের দাম বেড়ে যাওয়ায় খুব একটা লাভ না হওয়ায় ঋণ সহায়তার দাবি জানিয়েছেন তারা। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও সরকারের কাছে সহায়তার অনুরোধ জানিয়েছেন। এদিকে এ পেশায় জড়িতদের অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে নিতে নানা উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে বলে জানান, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা।

দুর্গাপূজা মানেই আনন্দ। আর এ আনন্দের অন্যতম উপকরণ ঢাক-ঢোলসহ নানা বাদ্যযন্ত্র। তাই এ সব বাদ্যযন্ত্র তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার কারিগররা। ঠুক-ঠাক শব্দে ভোর থেকে রাত পযর্ন্ত শক্ত কাঠ কেটে নানা রকমের ঢাক-ঢোল তৈরি করছেন কারিগররা। নিজ জেলার চাহিদা মিটিয়ে এসব বাদ্যযন্ত্র যাচ্ছে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায়। তবে প্রয়োজনীয় উপকরণের দাম বেড়ে যাওয়ায় এ পেশার প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছেন অনেকে।

ঢাল-ঢোলসহ বাদ্যযন্ত্র কারিগরদের গ্রামগুলোতে বসে নেই নারীরাও। পুরুষের পাশাপাশি ঢাক-ঢোলের বিড়া তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা।

এ পেশায় জড়িতদের সহজ শর্তে ঋণ ও আর্থিক সহায়তার অনুরোধ জানিয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি।

চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল বলেন, এখানে প্রায় দুইশো ফ্যামিলি আছে, তাদের যদি সুদমুক্ত ঋণ দেয়া হয় তাহলে তারা উপকৃত হবেন।  

অবশ্য উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তার দাবি, এ পেশার মানুষদের সহায়তায় সুদমুক্ত ঋণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. আব্দুল মান্নান বলেন, তাদের পূর্বপুরুষের পেশা ধরে রাখার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। 

ঘিওর উপজেলার বালিয়াখোড়া, রাথুরা, শিমুলিয়া ও চান্দহরসহ ৬টি গ্রামের ৫ শতাধিক পরিবার ঢাক-ঢোলসহ বাদ্যযন্ত্র তৈরি করে জীবিকা নির্বাহ করেন।