SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১৫-০৯-২০১৯ ১০:৪৬:৪৫

পূজার প্রস্তুতিতে ব্যস্ত সিরাজগঞ্জের পাল পাড়া

siraj-puja

সামনেই সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। ক'দিন পরই দেবী দুর্গা আসছেন মর্ত্যলোকে। তার আগমনকে ঘিরে তাই ব্যস্ত সিরাজগঞ্জের পাল পাড়ার প্রতিমা তৈরির কারিগররা। দিনরাত পরিশ্রম করে নিপুণ হাতে তৈরি করছেন প্রতিমা। তবে প্রতিমা তৈরির উপকরণের মূল্য বৃদ্ধি পেলেও কাঙ্ক্ষিত মূল্য পাচ্ছে না বলে অভিযোগ কারিগরদের।

সিরাজগঞ্জের ভদ্রঘাট পাল পাড়ার প্রতিমা তৈরির কারিগর ষাটোর্ধ গুপিনাথ পাল। শারদীয় দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে রাত দিন কাদামাটি দিয়ে একটু একটু করে নিপুণ হাতে গড়ে তুলছেন দেবীদূর্গার এক একটি প্রতিমা।

পূজা ঘনিয়ে আসায় তার মতো ব্যস্ত পাল পাড়ার মৃৎশিল্পীরাও। ধরণীর শক্ত মাটি নরম করে দেবীদুর্গার সাথে গড়ে তুলছে কার্তিক, গণেশ, লক্ষ্মী আর সরস্বতীর মূর্তি। কাজের চাপ বেশী থাকায় পুরুষদের পাশাপাশি কাজ করছেন বাড়ির মহিলারাও। এখন চলছে খড় আর কাদামাটি দিয়ে প্রতিমা তৈরির প্রাথমিক কাজ। এরপর প্রতিমাতে দেয়া হবে রং তুলির আঁচড়।

তবে প্রতিমা তৈরির বাঁশ, খড়, মাটিসহ অন্যান্য উপকরণের দাম বৃদ্ধি পেলেও বাড়ে নি প্রতিমার মূল্য। আর্থিকভাবে লাভবান না হলেও পৈত্রিক পেশা ধরে রাখতে এ কাজ করে যাচ্ছেন কারিগররা।

জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নেতা জানালেন, আসন্ন দুর্গা পূজার সবধরনের প্রস্তুতির কাজ ঠিকভাবেই এগিয়ে চলছে।

জেলা পূজা উদযাপন সভাপতি সন্তোষ কুমার কানু বলেন, গতবারের চেয়ে এবারের দুর্গা উৎসব আরো ভালো হবে আমরা সেইভাবে ব্যবস্থা নিয়েছি।

আর প্রতিমা তৈরির কারিগরদের পাশাপাশি পূজায় সার্বিক নিরাপত্তা প্রদানের কথা জানালেন, জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তা।

 পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তী বলেন, বিভিন্ন জায়গায় প্রতিমা নির্মাণ হচ্ছে, আমরা সংশ্লিষ্ট থানার মাধ্যমে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করছি।

এ বছর সিরাজগঞ্জের ৯টি উপজেলায় প্রায় ৫'শ পূজা মণ্ডপে দুর্গাপূজার আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ।