SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ২২-০৮-২০১৯ ১৬:৫৫:৫৩

ট্রাম্পের সমালোচনায় ডেনমার্ক প্রধানমন্ত্রী

den-green2-2

গ্রিনল্যান্ড বিক্রি না করার সিদ্ধান্তে সফর বাতিল করায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের তীব্র সমালোচনা করেছেন ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেট ফ্রেডরিকসন। ট্রাম্পের বক্তব্যকে 'বিরক্তিকর' বলেও উল্লেখ করেন তিনি। এদিকে গ্রিনল্যান্ড ইস্যুতে ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে কুরুচিপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্র এমন আচরণ মেনে নেবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

সম্প্রতি বিশ্বের সবচেয়ে বড় দ্বীপ গ্রিনল্যান্ড কেনার আগ্রহ প্রকাশ করে আলোচনার জন্ম দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে তার চাওয়াকে হাস্যকর বলে উড়িয়ে দেয় ডেনমার্ক। তারা সাফ জানিয়ে দেয় দ্বীপটি বিক্রির জন্য নয়। এরপরই দেশটিতে নিজের রাষ্ট্রীয় সফর বাতিল করেন ট্রাম্প। তার এমন সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে সাধারণ ড্যানিসরা।

তারা বলেন, ট্রাম্প কখন কি সিদ্ধান্ত নেয় তা তিনি নিজেও জানেন না। আমি মনে করি, তার এমন সিদ্ধান্ত কখনো ভালো ফল বয়ে আনবে না।

আকস্মিক সফর বাতিল করায় ট্রাম্পের সমালোচনা করেছেন খোদ ড্যানিস প্রধানমন্ত্রীও। এমনকি গ্রিনল্যান্ড বিক্রি হবে না বলে নিজের সিদ্ধান্ত পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি।

তিনি বলেন, আমাদের প্রস্তুতি ঠিকভাবেই চলছিল। আমি তার সাথে দেখা করার অপেক্ষায় ছিলাম। তিনি গ্রিনল্যান্ড কিনতে চেয়েছিলেন, আমরা বলেছিলাম তা সম্ভব নয়। তাতে তিনি আগামী মাসের নির্ধারিত সফর বাতিল করেছেন। এ সিদ্ধান্তে আমি বিরক্ত।

এদিকে গ্রিনল্যান্ড ইস্যুতে ড্যানিস প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যকে অসঙ্গতিপূর্ণ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউজে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, দ্বীপটি কিনতে চাওয়া ছিল শুধুমাত্র একটা পরিকল্পনার অংশ।

ট্রাম্প বলেন, মেট ফ্রেডরিকসন যা বলেছেন তা ঠিক নয়। তিনি সরাসরি আমার সাথে কথা বলে না করতে পারতেন, তাহলে আমরাও আগ্রহ দেখাতাম না। তার মনে রাখা উচিৎ প্রেসিডেন্ট ওবামার সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তারা যেভাবে আচরণ করেছে এখন তা হতে দেয়া হবে না।

তবে ট্রাম্প নির্ধারিত সফর বাতিল করলেও তা দুদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। বিষয়টি নিয়ে ডেনমার্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন বলেও জানান তিনি।

নানা মূল্যবান খনিজ সম্পদে সমৃদ্ধ দ্বীপটি ডেনমার্কের একটি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল। অষ্টাদশ শতকে প্রায় ২২ লাখ বর্গকিলোমিটার আয়তনের দ্বীপটিতে নিজেদের উপনিবেশ গড়ে তোলে ডেনমার্ক।