SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ২০-০৮-২০১৯ ১৭:১৪:১৯

ভারতের কর্ণাটকে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮২

ind-flood-jpg-2

ভারতের কর্ণাটক রাজ্যে ভারী বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮২ জনে দাঁড়িয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত ৯ জন। এদিকে দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় হিমাচল, জম্মু, উত্তরাখণ্ড এবং পাঞ্জাবে বন্যা ও ভূমিধ্বসে অন্তত ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে শুধু হিমাচল প্রদেশেই ২৫ জন মারা গেছেন। নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে অন্তত দুই লাখ মানুষকে। বন্যা দেখা দিয়েছে দিল্লীর নিম্নাঞ্চলেও।

সোমবার (১৯ আগস্ট) ভারতের জম্মুতে আটকা পড়া দুই জেলেকে নাটকীয়ভাবে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায় বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার। কর্তৃপক্ষ জানায়, তায়ী নদীর পানি আকস্মিক বেড়ে যাওয়ায় আটকা পড়েছিল তারা।

কর্তৃপক্ষ বলেন, দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর যখন তাদের উদ্ধারে অভিযান শুরু করা যাচ্ছিল না, তখন বিমান বাহিনীকে খবর দেয়া হয়। তারা এসে নিরাপদে তাদেরকে উদ্ধার করে।

এদিকে ভারী বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে হিমাচল প্রদেশে। বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে শতাধিক গ্রাম। ইতোমধ্যে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে কয়েক লাখ মানুষকে। বন্যাকবলিত মানুষদের জন্য একশো কোটি রুপি ত্রাণ সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী আমরিন্দর সিং।

পাঞ্জাব, উত্তরাখণ্ড ও হরিয়ানার বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। জারি করা হয়েছে তীব্র সতর্কতা। পানিবন্দি মানুষদের উদ্ধারে একসঙ্গে কাজ করছে সেনা-নৌ ও বিমানবাহিনীর একটি দল।

যমুনা নদীর পানি অস্বাভাবিকভাবে বাড়তে থাকায় বন্যা দেখা দিয়েছে রাজধানী দিল্লীর নিম্নাঞ্চলীয় জেলাগুলোতে। ইতোমধ্যে ঐ এলাকার বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু করা হয়েছে।

এদিকে কর্ণাটকের চলমান বন্যায় হতাহতের সংখ্যা বেড়েছে। নিখোঁজদের উদ্ধারে কাজ করছে উদ্ধারকারী দল। এরমধ্যেই বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে রাজ্য কর্তৃপক্ষ।