SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ২০-০৮-২০১৯ ১৪:৫১:১১

বিপিএলের লভ্যাংশ দাবি ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর/রিপিট

bpl-team-up1

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেট- বিপিএলের অর্জিত অর্থ থেকে লভ্যাংশ দাবি করেছে অংশগ্রহণকারী দল খুলনা ও রাজশাহী। তাদের যুক্তি প্রতি বছর অনেক অর্থ খরচ করে দল গড়া হলেও, খুব একটা সুবিধা করতে পারে না ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।

এছাড়াও, পরবর্তী চার মৌসুমের জন্য নির্দিষ্ট একটি বাইলজ তৈরি করা হয়। যাতে কোনো বিভ্রান্তির মুখে না পড়ে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর। বিপিএলের গর্ভনিং কাউন্সিলের সাথে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।

বিপিএলের গর্ভনিং কাউন্সিলের সাথে প্রত্যেক ফ্র্যাঞ্চাইজির চুক্তি চার বছরের। ঐ চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে গেলো আসরেই। তাই আসন্ন ৭ম আসরের আগে নতুন করে চুক্তি নবায়ন করতে হবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর। সাথে পরবর্তী চার মৌসুমের জন্য নতুন বাইলজ তৈরি করবে বিপিএলের গর্ভনিং কাউন্সিল।

কিন্তু, কোন চুক্তি সম্পন্ন না হবার আগে বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি দেশি-বিদেশি ক্রিকেটার দলে ভেড়াচ্ছে। যা নিয়ম বর্হিভূত বলছে বিপিএলের গর্ভনিং কাউন্সিল। আর এতে সৃষ্টি হয়েছে নানা জটিলতা।

তাই ডিসেম্বরে ৭ম আসর শুরুর পূর্বে দলগুলোর সাথে চুক্তি নবায়ন ও বাইলজের নানা দিক নিয়ে বৈঠকে বসে গর্ভনিং কাউন্সিল। যেখানে প্রথম দিনে বৈঠকে অংশ নেয় ঢাকা, খুলনা ও রাজশাহী। দলগুলোর দাবি, লভ্যাংশের ভাগ চাই তাদের। যেমন আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিরা পেয়ে থাকে।

ঢাকা ডায়নামাইটসের প্রধান নির্বাহী ওবায়েদ নিজাম বলেন, আইপিএলে দলগুলো নানাভাবে অনেক বেশি সুবিধা পেয়ে থাকেন।

খুলনা টাইটান্সের কর্ণধার কাজী এনাম আহমেদ বলেন, বিসিবি তাদের আয়ের দিকে খেয়াল করে আমাদের জন্য বাড়তি লাভের ব্যবস্থা করতে পারে।

অনেকের মতে, বিপিএলের বাইলজের ফাঁকফোক থাকে। পরবর্তী চার মৌসুমে সেটা যেন না থাকে তারও শক্ত ভিত্তির দাবি ফ্র্যাঞ্চইজিগুলোর।

ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর কর্ণধারদের দাবি, সবধরণের নিয়ম নিয়ে সবার সাথে আলোচনা করে সেটাই চার বছরের জন্য নির্ধারণ করা হোক।

মঙ্গলবার রংপুর, সিলেট ও কুমিল্লার সাথে আলোচনায় বসবে বিপিএলের গর্ভনিং কাউন্সিল।