SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১৭-০৮-২০১৯ ২০:০৬:২৮

‘পরবর্তী সাত দিন ডেঙ্গু পরিস্থিতি খুবই চ্যালেঞ্জিং হবে’

dengue-sunday11

ঢাকা ও ফরিদপুরে ডেঙ্গুতে আরো দু'জন মারা গেছে। শনিবার (১৭ আগস্ট) দুপুর পর্যন্ত গেলো ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৪৬০ জন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, গত তিন দিন ধরেই কমছে ভর্তি রোগীর সংখ্যা। তবে আগামী সাতদিনের আগে পরিস্থিতি নিয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলা যাবে না। এদিকে, এডিস ধ্বংসে শিগগিরই বাড়ি বাড়ি অভিযান চালানোর কথা জানিয়েছেন ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

ঈদের ছুটিতে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা থাকলেও পরিসংখ্যান বলেছ ভিন্ন কথা। স্বাস্থ্য অধিদফতর বলছে, আগস্টের প্রথম সপ্তাহের তুলনায় সারা দেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির দিকে। তথ্য বলছে, গত তিন দিন ধরেই ক্রমেই হ্রাস পাচ্ছে ভর্তি রোগীর সংখ্যা। শুক্রবারের থেকে রোগী ভর্তি কমেছে ১৫ শতাংশ। আর গত সাত দিনে ছাড়পত্র পাওয়া রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৮৫%। যদিও এখনই স্বস্তি দেখছে না অধিদপ্তর।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ পরিচালক সানিয়া তাহমিনা বলেন, পরবর্তী সাতটি দিন আমাদের জন্য খুবই চ্যালেঞ্জিং হবে।

এদিকে ডেঙ্গু মোকাবিলায় এক হয়ে কাজ করতে স্থানীয় সরকার, স্বাস্থ্য, দুর্যোগ এই তিন মন্ত্রণালয় দুই সিটি কর্পোরেশন, এটুআইসহ আরো দুটি সংস্থা নিয়ে এমওইউ স্বাক্ষরের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করলো নতুন প্লাটফর্ম। চালু করা হয় স্টপ ডেঙ্গু অ্যাপ।

অনুষ্ঠানে ঢাকা উত্তরের মেয়র জানান, শিগগিরই প্রতিটি ওয়ার্ডে বাড়ি বাড়ি গিয়ে চালানো হবে বিশেষ চিরুনি অভিযান।

ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, এডিস মশা নিধনে প্রত্যেকটি বাড়িতে গিয়ে চিরুনি অভিযান চালানো হবে।

তবে এসব কার্যক্রম কেবল দু'এক মাসের জন্য নয়, বছর জুড়েই পরিচালনা ও তার যথাযথ মনিটরিং এর কথা জানালেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী।

ডেঙ্গুকে দুর্যোগ ঘোষণা না করলেও, মোকাবিলায় পাশে থাকার কথা জালেন প্রতিমন্ত্রী।