SomoyNews.TV

স্বাস্থ্য

আপডেট- ২২-০৭-২০১৯ ১৩:২৪:০৫

ডেঙ্গুর ধরণ ভিন্ন হওয়ায় বাড়ছে প্রাণহানির আশঙ্কা

blood-dengue

রাজধানীতে এক আতঙ্কের নাম এখন ডেঙ্গু। এবার ডেঙ্গুর ধরণ ভিন্ন হওয়ায় বাড়ছে প্রাণহানির আশঙ্কা। উচ্চ তাপমাত্রা, তীব্র ব্যথা না থাকায় চিকিৎসকের কাছে যেতে যেমন দেরি হচ্ছে, তেমনি চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়েও আছে বিভ্রান্তি। এক্ষেত্রে ডেঙ্গু ম্যানেজমেন্ট ন্যাশনাল গাইড লাইন ২০১৮-এর নির্দেশনা মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলছেন, প্লাটিলেট কমে গেলেই রক্ত দিতে হবে এই ধারণা থেকে বেরিয়ে এসে রক্তের ঘনত্ব নির্ণয় করে দিতে হবে চিকিৎসা।

একটা সময় ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসায় প্লাটিলেট হিসাবই সবার আগে বিবেচনা করা হত। আর প্লাটিলেট লাখের নীচে নামলেই দেয়া হতো রক্ত। তবে ডেঙ্গু ম্যানেজমেন্ট ন্যাশনাল গাইড লাইন ২০১৮ তে এসেছে নতুন নির্দেশনা।

তাই চিকিৎসার ক্ষেত্রে প্লাটিলেট দিয়ে রোগীর অবস্থা জানলেও ১০ হাজারের নীচে নামলে কিংবা অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণের আগে দিতে হয়না রক্ত।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন ডেঙ্গুর ক্ষেত্রে রক্তের অণুচক্রিকা নয় গুরুত্ব দিতে হয় ঘনত্বের দিকে।

ঢাকা শিশু হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. এম মনির হোসেন বলেন, 'যে ক্ষেত্রে রোগী পানি শূন্যতায় চলে যায় তার নাম হচ্ছে ডেঙ্গু সক সিনড্রোম। সেক্ষেত্র রক্তনালীর প্লাজমা লিক হয়ে যায়। প্লাটিলেট এখন আর লাগছে না। কিন্তু প্লাটিলেট দেখে আমরা ট্রাক করি যে রোগী খারাপের দিকে যাচ্ছে কি না।

আগে থেকেই হার্ট, কিডনী সমস্যা আছে, শিশু, প্রসুতি মা বিংবা যাদের ওজন একটু বেশি তাদের চিকিৎসায় বাড়তি সতর্কতার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।