SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ০৩-০৭-২০১৯ ১৪:২৬:১৯

শালীকে ধর্ষণ-হত্যা মামলায় দুলাভাইয়ের যাবজ্জীবন

65555999-1307998979375969-2

নাটোর শহরের তলীরর নারায়নপুর এলাকার ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী মৌমিতা আক্তার মৌকে ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দুইটি ধারায় দুলাভাই সোহাগকে দুইটি ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং ৩ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত।  ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে ৯ এর (১) ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং লাশ গুমের অভিযোগে ২১১ ধারায় ৩ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন আদালত।   

জরিমানার ১ লাখ টাকা আদায় করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে প্রদানের জন্য রাষ্ট্রকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার( ৩ জুলাই) দুপুরে নাটোরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মাইনুল হক এই রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত সোহাগ শহরের উত্তর বড়গাছা জোলারপাড় এলাকার খোকনের ছেলে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি অ্যাডঃ শাহজাহান কবির জানান, দণ্ডপ্রাপ্ত সোহাগের সাথে নারায়নপুর এলাকার মোমিন হোসেনের প্রথম কন্যা মৌসুমীর ২০১২ সালে বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর সোহাগ তার স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি ৫শ’ গজ দূরে ভাড়া থাকতেন।

২০১৭ সালের ১০ জুলাই বিকেলে মৌমিতা তার বোনের বাড়িতে বেড়াতে গেলে তার বোন বাড়িতে না থাকায় তাকে ধর্ষণের পর হত্যা লাশ পার্শ্ববর্তী একটি পাট ক্ষেতে ফেলে দেয়। এলাকাবাসী পাট ক্ষেতে মৌমিতা লাশ দেখে পরিবার ও পুলিশ খবর দেয়।

এই ঘটনায় পুলিশ সোহাগকে আটক করলে সে হত্যার দায় শিকার করে। এর প্রেক্ষিতে ওই দিন নিহতের পিতা  মোমিন হোসেন বাদী হয়ে সোহাগকে অভিযুক্ত করে নাটোর থানায় মামলা করেন। পুলিশ সোহাগকে অভিযুক্ত করে আদলতে অভিযোগ পত্র দিলে আদালত সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে এই রায় দেন। তবে অভিযুক্ত সোহাগের মৃত্যু দণ্ড প্রদান না করায় রাষ্ট্রপক্ষ এই রায়ে সন্তুষ্ট হয়নি।