SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ০৭-০৯-২০১৮ ১৭:৪৬:৫১

‘খোঁড়া যুক্তি’ দিয়ে ওভারব্রিজে উঠছেন না পথচারীরা

trffic-somoy

চালক, যাত্রী ও পথচারীদের ট্রাফিক আইন মেনে চলতে উদ্বুদ্ধ করতে রাজধানীতে ছুটির দিনেও তৎপর ট্রাফিক পুলিশ। তাদের সঙ্গে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, বিএনসিসিসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনও জনসাধারণকে সচেতন করেন। মাসব্যাপী ট্রাফিক সচেতনতা কর্মসূচিতে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরবে বলে আশাবাদী ট্রাফিক বিভাগ।

একজন মেয়ে পথচারী বলেন, 'আজকেই যে এই নিয়ম করছে। এটাতো আমি জানি না।  অন্য সময়তো যায়।''

আর একজন পথচারী নিজেকে বৃদ্ধ দাবি করে বলেন, 'বুড়া মানুষ কেমনে যাবো? এর লাইগা দৌড়াইয়া আইয়া পড়ছিলাম। আমারতো ৬০ চলতাসে। দাঁতও পইড়া গেছে।'

সক্ষমতা থাকার পরও জেনে বুঝে নানা খোঁড়া যুক্তি দিয়ে পার পেতে চাইছেন পথচারীরা। হাত ফসকে বের হয়ে যেতে চাইলেও ট্রাফিক নিয়ম মেনে চলতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সদস্যরা।

হতাশা থাকলেও জনসাধারণকে জেব্রা ক্রসিং, ফুটওভারব্রিজ ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে পেরে আনন্দিত তারা।

রাস্তায় মোটরসাইকেল আরোহীদের হেলমেট পরার সংখ্যা বেড়েছে ব্যাপক হারে। এরপরও যারা না পরেই রাস্তায় নেমে পড়েছেন তাদের মধ্যেও ছিল অনুশোচনা বা নিয়ম মানার আশ্বাস।

মাসব্যাপী কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মোড়ে মোড়ে অটোমেটিক ট্রাফিক সিগন্যাল কার্যকর করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে ট্রাফিক বিভাগ।

ডিএমপি ট্রাফিক দক্ষিণের যুগ্ম-কমিশনার মফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, 'আমরা রাজধানীর বেশ কিছু জায়গায় ইতিমধ্যে ট্রাফিক সিগনাল প্রতিষ্ঠিত করেছি। বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে ক্রমান্বয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখবো।'

ট্রাফিক পুলিশের ৪টি জোনের ১৫০টি চেকপোস্টে একযোগে পরিচালিত হচ্ছে এই অভিযান। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর সদস্যের অনুপস্থিতিতে পথচারী বা চালকদের ট্রাফিক নিয়ম মানার তাগিদই সত্যিকারের সফলতা আনবে বলে বিশ্বাস ট্রাফিক বিভাগের।