SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ২২-০৮-২০১৮ ১৯:১২:৫৯

চারিদিকে আনন্দ অথচ চোখের জল মুছছেন বৃদ্ধাশ্রমের বাসিন্দারা

old-home-up1

  চারিদিকে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে পড়লেও চোখের জল মুছে সময় পার করছেন বৃদ্ধাশ্রমে আশ্রিতরা। ছেলে-মেয়ে পরিবার-পরিজনের সাথে কাটানো সেই রঙ্গিন স্মৃতি বুকে আগলে উদযাপন করছেন সাদা-কালো ঈদ। তারপর ও বঞ্চিত এই মানুষগুলোর চাওয়া ভালো থাকুক পরিবার। ভালো কাটুক স্বজনদের ঈদ।  

  
মজিরণ বেওয়ার মতো বৃদ্ধাশ্রমে আশ্রয় নেয়া অসহায় নারী-পুরুষদের জীবনে কখনোই রঙ্গিন হয়ে ওঠে না ঈদের আনন্দ। যতদিন হাত চলেছে ততদিন পরিবারে কদর ছিলো তাদের। জীবনের শেষ সময়ে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন মানুষগুলো প্রহর গুনছেন বৃদ্ধাশ্রমে। তাইতো এখানে ঈদ মানে কেবলই বিষতা। 

 

স্বেচ্ছাসেবার ভিত্তিতে সমাজের বঞ্চিত মানুষদের নিয়ে স্থানীয় তরুণ যুবকরা বৃদ্ধাশ্রম গড়ে তুললেও আর্থিক সঙ্কটের কারণে ঈদ উপলক্ষে তেমন আয়োজন করতে পারেনি উদ্যোক্তারা। 

  আপেল মাহমুদ (পরিচালক, বৃদ্ধসেবা বৃদ্ধাশ্রম, গোবিন্দগঞ্জ, গাইবান্ধা) আমরা অনেক চেষ্টা করি, কিন্তু আমাদের যতটুকু সাধ্য ততটুকুই করতে পারি।  

দেড় বছর আগে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের বোয়ালিয়া এলাকায় ৩জন অসহায় বৃদ্ধকে নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক তরুণরা গড়ে তোলেন বৃদ্ধসেবা বৃদ্ধাশ্রম। বর্তমানে এই বৃদ্ধাশ্রমে ১৯ জন অসহায় নারী পুরুষ বসবাস করছেন। 

  সারাটা জীবন পরিবার এবং সমাজের জন্য যুদ্ধ করলেও জীবনের শেষ সময়ে স্বজনদের অবহেলা দুরে ঠেলে দিয়েছে এই মানুষ গুলোকে। রাস্তাঘাটে পরে থাকা অসহায় এই মানুষদের সহায় হয়ে দাড়াঁয় গোবিন্দগঞ্জের একদল উদ্যমী তরুণ। তাদের প্রত্যাশা সমাজের বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে এই মানুষ গুলোর মুখে হাসি ফোটানো সম্ভব।