SomoyNews.TV

ফুটবল বিশ্বকাপ

আপডেট- ১৩-০৭-২০১৮ ১২:২০:০২

খেলা দেখার ফাঁকে রাশিয়া দর্শন

tsh

বিশ্বকাপের আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে রাশিয়ার সব জায়গায়। খেলা দেখার ফাঁকে ফাঁকে মিলছে খানিকটা বিরতি। আর এই অবসর সময়টুকুতে বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানগুলো ঘুরে ঘুরে দেখছেন রাশিয়ায় আসা বিভিন্ন দেশের পর্যটকরা। তেমনি একটি ঐতিহাসিক নিদর্শন সোভিয়েত বিপ্লবের নেতা জোসেফ স্টালিনের স্মৃতিসমৃদ্ধ বাঙ্কার। সামারায় ঐতিহাসিক এ নিদর্শন দেখতে ভিড় বেড়েছে পর্যটন পিপাসীদের।


রাশিয়া- অনন্যসব নিদর্শন আর ঐতিহ্যসম্বলিত একটি দেশ। ফুটবল বিশ্বকাপের জন্য এই মুহুর্তে পুরো বিশ্বের দৃষ্টি এখন রাশিয়াতে। ভলগা নদীর তীরে অবস্থিত রাশিয়ার অন্যতম সমৃদ্ধ শহর সামারা। এখানে রয়েছে ঐতিহ্যবাহী বেশকিছু নির্দশন। যা দেখতে ছুটে বেড়াচ্ছেন এখানে আসা দর্শনার্থীরা।

সোভিয়েত আন্দোলনের নেতা স্টালিনের বাঙ্কার এখানকার অনত্যম নির্দশন। যেটি এখন স্টালিন স্মৃতি জাদুঘর। যে স্থানটি অনুপ্রেরণা দিয়েছে অক্টোবর বিপ্লব ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার এ নিদর্শন দেখতে প্রতিবছর প্রায় ৩০ হাজার দর্শনার্থী ছুটে আসেন এখানে। তাই বিশ্বকাপ উপভোগ করতে আসা সমর্থকরাও ভুল করেননি এটি ঘুরে দেখতে।

এ স্থানটি ঘুরে দেখতে পেরে অসম্ভব ভালো লাগছে। এটি আমাদের জন্য অন্যরকম একটি অভিজ্ঞতা।

এখানে এসে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অনেক অজানা ইতিহাস সম্পর্কে ধারণা হলো। সবাই বেশ উপভোগ করছে।

প্রায় ৩৭ মিটার গভীর এ বাঙ্কারটির একেবারে নিচের অংশটি দুই কক্ষবিশিষ্ট। যার একটি সম্মেলন কক্ষ এবং স্টালিনের ব্যক্তিগত কক্ষ হিসেবে ব্যবহৃত হতো। যেখানে রাখা আছে স্টালিনের চেয়ার, টেবিল ও ফোন। যেগুলো স্পর্শ করে দেখেন দর্শনার্থীরা।

এখানে অনেক দর্শনার্থীর ভীড় হচ্ছে। স্টালিনের ব্যবহৃত অনেক কিছুই ছুঁয়ে দেখতে পারছে তারা। তারা এখানে এসে ইতিহাসকে জানতে পারছে।

এখানে আসা দর্শনার্থীদের মুগ্ধ করেছে একটি ভিডিওচিত্র। ১৯৪১ সালের মিলিটারি প্যারেডের এই ভিডিওচিত্র দেখে সবাই বেশ রোমাঞ্চিত।

রাশিয়ার একসময়কার অন্তর্বর্তীকালীন রাজধানী শহর সামারাকে ঘিরে দর্শনার্থীদের আগ্রহের কমতি নেই।