SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ২৯-০৫-২০১৮ ১১:০৪:২৯

আফগানিস্তান র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ সিরিজে এগিয়ে: মুশফিক

mushfik-bd

র‌্যাঙ্কিংয়ে আফগানিস্তান এগিয়ে। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট হওয়ায় সম্ভব যে কোনো কিছুই। আসন্ন সিরিজে তাই বাংলাদেশকেই এগিয়ে রাখছেন মুশফিকুর রহিম। সময় সংবাদকে তিনি জানান, ওয়ানডেতে বাংলাদেশ এখন কতটা পরিণত, তা বিশ্বকে দেখানোর সুযোগ হবে আগামী বিশ্বকাপে। দলের নতুনরাও পরিণত হয়ে উঠছেন। যা তাকে দেখাচ্ছে দারুণ কিছুর স্বপ্ন। মুশফিকুর রহিমের সাক্ষাতকারের বিস্তারিত সাজিদ মুস্তাহিদের রিপোর্টে।

 

আফগানিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের ক্রিকেটিয় দ্বৈরথ খুব একটা পুরনো না। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত দু'দলের দেখা হয়েছে মোট ৬ বার। আর টি-টোয়েন্টিতে একমাত্র দেখায় আফগানদের উড়িয়ে দিয়েছিলো টাইগাররা। তারপরও আসন্ন সিরিজ নিয়ে আলোচনার শেষ নেই।

কারণ সময় পাল্টেছে। কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে আফগানরা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে। সমীহ আদায় করে নিয়েছে সাকিব-তামিমদের। কিন্তু আফগানরা অজেয় না। তাই রশিদ-মুজিবদের বিপক্ষে নিজ দলকেই এগিয়ে রাখছেন মুশফিক।

মুশফিকুর রহিম বলেন, ‘র‌্যাঙ্কিং যেটাই থাকুক না কেন, নির্দিষ্ট একটি দিনে যে ভালো খেলবে, সেই জিতবে। লাস্ট সিরিজটা আমরা যেভাবে খেলেছি, একটা টিম হিসেবে টি টোয়েন্টি ফরম্যাটে, কনঢিডেন্সটা আমাদের আছে। আমার মনে হয় যে সেখান থেকে বিল্ড করতে পারলে ইনশাল্লাহ আমরা ওদেরকে সিরিজটায় হারাতে পারবো।’  

আফগানিস্তান সিরিজের পরই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর টাইগারদের। পশ্চিম ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জের ক্রিকেটে নেই আগের জৌলুস। তবে, ক্যারিবিয়ানরা খেলবে নিজেদের ঘরে। যেটা বেশ চিন্তার কারণ হলেও আশার দিশারী মুশফিক। আবারো ৯ বছর আগের কীর্তির পুর্নমঞ্চায়ণের স্বপ্ন তার চোখে।

মুশফিকুর রহিম বলেন, ‘হোম কন্ডিশনে কিন্তু সবাই যার যার অ্যাডভান্টেজটা নেয়ার চেষ্টা করে। সেদিক থেকে বলবো যে অব্যশ্যই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং হবে বিষয়টা। তবে, বাংলাদেশ টিম এখন ওই পর্যায়ে আছে যে যত কষ্টই হোক না কেন, টাফ কন্ডিশনেও সিরিজ জয়ের আশা করতেই পারে। বাংলাদেশ টিম যেন দুটি সিরিজই জয় করে এবং সেখানে আমার কন্ট্রিবিশনটাই যেন বেশি থাকে।’ 

একই ভাবে মুশফিক আশাবাদী ২০১৯ বিশ্বকাপ নিয়েও। ফরম্যাট ভিন্ন হলেও, আইসিসির ইভেন্টে ভালো করার ধারাবাহিকতার চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশ নিতে পারবে বলে বিশ্বাস তার।

তিনি বলেন, ‘সবার সঙ্গে সবার খেলা হবে। সুতরাং বাংলাদেশ টিম যে ওয়ানডে ক্রিকেটে এতদূর এগিয়েছে। এটা একটা ভালো প্ল্যাটফর্ম হবে পুরো বিশ্বকে দেখানোর জন্য যে এরকম কন্ডিশনেও বাংলাদেশ ভালো খেলতে পারে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশ কিন্তু অনেক ভালো ক্রিকেট খেলেছে। কিছু জায়গা আছে, যেখানে ইমপ্রুভ করলে ওয়ার্ল্ডকাপে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে।’