SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাণিজ্য সময়

আপডেট- ২৮-০৫-২০১৮ ০৩:৪০:৪৬

ভিসকস ফাইবার কমাবে আমদানি নির্ভরতা

viscose-jute

পাট থেকে তুলার বিকল্প উন্নতমানের ভিসকস ফাইবার তৈরির গবেষণা শুরু হয়েছে ফিনল্যান্ডে। বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী বলছেন বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে হওয়া এ গবেষণা সফল হলে, তুলা ও সুতা আমদানিতে সাশ্রয় হবে হাজার কোটি টাকা। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, পাটখাতের দেশীয় প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা প্রশ্নবিদ্ধ, তাই বাণিজ্যিক উৎপাদনও অভিজ্ঞ বিদেশী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমেই হওয়া উচিৎ।  
 
গাছের কাঠ থেকে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে তুলার বিকল্প ভিসকস ফাইবার তৈরি করা হয়। যা ব্যাপকভাবে ব্যবহার হয় পোশাক শিল্পে। বাংলাদেশের পাট থেকে ভিসকস তৈরির সম্ভাব্যতা নিয়ে কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালে। সবশেষ সরকার ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ফিনল্যান্ডের দুটি প্রতিষ্ঠানকে দিয়েছে গবেষণার কাজ, আর সুইডেনের একটি প্রতিষ্ঠান তৈরি করবে কারখানার নকশা।

 

বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম বলেন, আমরা অলরেডি প্ল্যানিং দিয়েছি,  ভিস্কস ফ্যাকটরি বানানলে আমাদের তুলা কম উৎপন্ন করলেও চলবে।

পোশাক রপ্তানীতে বিশ্বের দ্বিতীয় অবস্থানে থাকলেও বাংলাদেশের প্রধান এ শিল্পের কাঁচামাল আমদানি নির্ভর। একসময় সরাসরি আসতো কাপড়, গত এক দশকে তুলা থেকে সুতা ও সুতা থেকে কাপড় উৎপাদনে বড় বড় কারখানা গড়ে উঠেছে। পাট থেকে ভিসকস সূতা তৈরির গবেষণায় সরকারের এ উদ্যোগে আশান্বিত পোশাক খাতের ব্যবসায়ীরা।

 
ফারুক হাসান (জেষ্ঠ্য সহ-সভাপতি , বিজিএমইএ) বলেন,  একটা নির্দিষ্ট প্রোডাক্টের উপর ডিপেন্ডেন্সি থাকলে তা রিস্কি বিষয় হয়ে যায়, তাই আলাদা উপায় রাখা উচিত।

 

ভিসকস উৎপাদনে সফল হলে তা দেশের পোশাক শিল্পের বৈচিত্রময় পণ্য তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে মনে করেন এখাতের গবেষকরা।

 ড. মোয়াজ্জেম বলেন, এর অধিকাংশ শেয়ার যেন বিদেশিদের হাতে থাকে। কেন বিজিএমইএর যথেষ্ট দুর্দশা আছে।

রাজস্ব বোর্ডের তথ্যমতে, প্রতিবছরই বাড়ছে ভিসকসের আমদানি। তাই অর্থনীতিবিদরা মনে করেন পাট থেকে ‌ভিসকস উৎপাদন করা গেলে বাড়বে পাটচাষ, কৃষকরাও পাবেন বাড়তি মূল্য ।