SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ০৭-০২-২০১৮ ১৫:০১:১৬

'এখন আর দলের অটোমেটিক চয়েস নই'

mushfi2

২০১১ সাল থেকে বাংলাদেশ টেস্ট দলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন মুশফিকুর রহিম। সম্প্রতি তাকে সরিয়ে দলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে টি-২০ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে। শুধু তাই নয়, দলে লিটন দাসকে রেখে তাকে দিয়েই করানো হচ্ছে উইকেট কিপিং। মুশফিক এখন কেবলই ব্যাটসম্যান।

এক হিসেবে চাপ কমেছে মুশফিকের। এখন কেবল ব্যাটিংয়ে ফোকাস করতে পারবেন তিনি। তবে মুশির মতে, চাপটা এখনও আছে তবে অন্যভাবে। আগে দলকে নেতৃত্ব দেয়ার চাপ তো ছিলোই সঙ্গে ছিলো উইকেট কিপিং। আর এখন চাপ দলে টিকে থাকার।

[আরও পড়ুুন: টেস্ট খেলার জন্য পুরোপুরি ফিট মাশরাফি: ইয়াং]

তার মতে, অধিনায়ক হিসেবে দলের অটোমেটিক চয়েস ছিলেন। ব্যাট থেকে রান আসুক আর না আসুক সেরা একাদশে থাকা নিয়ে ভাবতে হতো না। তবে এখন নিয়মিত পারফর্ম করতে না পারলে একাদশে জায়গা হারাতে হবে।

'চাপ সবসময় আছে তবে অধিনায়ক হিসেবে দলে আমি অটোমেটিক চয়েস ছিলাম। অধিনায়ক এবং উইকেট কিপার হিসেবে আমি কখনো রান করেছি আবার কখনো শূন্য রানেও ফিরেছি। এখন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবে আমাকে নিয়মিত পারফর্ম করতে হবে।'

তবে চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত মুশফিক। ফিল্ডিংটাও উপভোগ করেন বলে জানা তিনি। শুভকামনা জানিয়েছেন লিটন দাসের জন্যও। তার মতে, আরও আট দশ বছর দলকে সার্ভিস দিতে পারবেন লিটন।

'আগে আমার তিনটি কাজ ছিলো আর এখন একটি। আমি সবসময় চেষ্টা করি সামর্থ্যের সেরাটা দিয়ে নিজের দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করি। সবশেষ ম্যাচেও (চট্টগ্রামে) আমি আমার সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করেছি। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে দ্বিতীয় ইনিংসে আউট হয়ে গেছি যদিও বলটা কঠিন ছিলো না। পরের ম্যাচে আরও বেশি রান করার চেষ্টা করবো।.... আমি খুশি। লিটন ব্যাটিং এবং কিপিং খুবই ভালো করছে। বাংলাদেশ ক্রিকেটকে আরও ৮-১০ বছর সার্ভিস দিতে পারবে।'

বাংলাদেশ দলে স্লিপের স্পেশালিস্ট ফিল্ডার নেই বললেই চলে। তাই ফিল্ডার মুশফিককে অনেকেই দেখতে চান উইকেট কিপারের পাশে। তবে এই দায়িত্বটা নিতে চান না মুশি।

'আমাদের জেনুইন স্লিপ ফিল্ডার নেই। আমরা এ ব্যাপারে সচেতন। আমার দুইটি আঙুলে ইনজুরি তাই স্লিপে ফিল্ডিং করাটা আমার জন্য কঠিন। আর আত্মবিশ্বাস ছাড়া ওই পজিশনে ফিল্ডিং করা যায় না।'