সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
৭ টা ৫২ মিঃ, ১৮ মে, ২০২১

বিদেশ থেকে ৩ মাস পেঁয়াজ আমদানি বন্ধের দাবি

নাটোরে ঈদের পর কেজিতে পেঁয়াজের দাম ৪ থেকে ৫ টাকা বৃদ্ধি পেলেও সরকার নির্ধারিত প্রতি কেজিতে ৪০ টাকা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ কৃষকের। তাদের দাবি, পেঁয়াজে লোকসান গুনছেন তারা। আর বাজার মনিটরের ব্যবস্থা না থাকায় এই অবস্থা বলে দাবি আড়তদারদের। তবে ন্যায্য মূল্য নিশ্চিতে বিদেশ থেকে ৩ মাস পেঁয়াজ আমদানি বন্ধের দাবি স্থানীয় কৃষি বিভাগের।
আল মামুন

জেলার পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ২৮ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হয়। মঙ্গলবার জেলার বৃহত্তম পেঁয়াজের হাট নলডাঙ্গায় প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয় ৩৪ থেকে ৩৫ টাকায়। সরকার নির্ধারিত প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ৪০ টাকা এখনো কৃষকরা পাচ্ছেন না। চলতি বছর বীজ ও চারার অতিরিক্ত দাম থাকায় বর্তমান দামে লোকসান গুনছেন বলে দাবি কৃষকদের।

কৃষকরা জানান, ঈদের আগে বিক্রি করেছি ৩০-৩২ টাকা। এখন বিক্রি করছি ৩৫ টাকায়। কিন্তু সরকার দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে ৪০ টাকা। কেজিতে ৫-৬ টাকা লোকসানে পেয়ার বিক্রি করছি।

আরও পড়ুন: করোনাকালেও রেমিট্যান্সে এক ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের

গত ১২ এপ্রিল কৃষি বিপণন অধিদপ্তর প্রতিকেজি পেঁয়াজের দাম ৪০ টাকা

নাটোর নলডাঙ্গা হাটের আড়তদার রানা আহমেদ বলেন, সরকারিভাবে দাম নির্ধারণ করলেও এক মাস পেরিয়ে গেলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। বাজার মনিটরের ব্যবস্থা না থাকায় সরকার নির্ধারিত দাম পাওয়া যাচ্ছে না।

নাটোর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সুব্রত কুমার সরকার বলেন, কৃষকদের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতে তিনমাস বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি না করা চাষিরা ভালো পাবে।

গত দু'বছর পেঁয়াজের ভালো দাম পাওয়ায় এবার জেলায় পেঁয়াজের উৎপাদন বেশি হয়েছে। গতবছর জেলায় ৬২ হাজার মেট্রিক টন হলেও এবার পেঁয়াজ উৎপাদন হয়েছে প্রায় ৮০ হাজার মেট্রিক টন।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়