সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
৫ টা ৬ মিঃ, ১২ মে, ২০২১

সৌদি আরবে গৃহবধূ নিখোঁজ ৬ মাস, প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা পরিবারের

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের এক কৃষকের স্ত্রী সৌদি আরবে গিয়ে গত ৬ মাস ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ প্রবাসী নারীর খোঁজে পরিবারটি বারবার দালালদের শরণাপন্ন হয়েছেন, কিন্তু লাভ হয়নি। অবশেষে গত রোববার (৯ মে) সাহায্য পেতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর আবেদন করেছেন। 
হিমাদ্রি শেখর ভদ্র

কৃষক পরিবারটির আবেদনপত্র ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামে সোনাফর আলীর ছেলে আমির উদ্দিনের মাধ্যমে ২০১৯ সালের ১১ ডিসেম্বর রানীগঞ্জ ইউনিয়নের গন্ধর্ব্বপুর গ্রামের আব্দুল হকের স্ত্রী মোছা. নাজমা বেগম (৩৬) সৌদি আরব যান। সৌদি আরব যাওয়ার পর প্রায় দুই তিন মাস পর পর যোগাযোগ করলেও গত ৬ মাস ধরে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেননি তার স্ত্রী। গত ৬ মাস ধরে একবারও যোগাযোগ না করায় স্ত্রীর খোঁজে দিশেহারা হয়ে পড়েন কৃষক আব্দুল হক। পরে দালাল আমির উদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্ত্রীকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য ৩০ হাজার টাকা দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু টাকা দেওয়ার পরও স্ত্রী দেশে আসা তো দূরের কথা, তার খোঁজও পাওয়া যায়নি। 

এ ব্যাপারে আব্দুল হক বলেন, আমি দালাল আমির উদ্দিনের মাধ্যমে ২০১৯ সালের ১১ ডিসেম্বর আমার স্ত্রীকে সৌদি আরবে পাঠিয়েছিলাম। আমার ঘরে ২টি মেয়ে রয়েছে। আমি কৃষক মানুষ কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করি। প্রত্যেক দিন কাজ করে বাড়িতে ফিরে এলে আমার মেয়েদের কান্নায় ঘরে থাকতে পারি না। এখন আমি অসহায় হয়ে গেছি। উপজেলা প্রশাসনসহ প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন, আমার স্ত্রীকে খোঁজ নিয়ে দেশে ফিরিয়ে আনা হোক।

বিষয়টি জানতে আমির উদ্দিনের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার মাধ্যমে মোছা. নাজমা বেগম সৌদি আরব গিয়েছিল। প্রায় ১৮ মাস বাড়িতে বেতনও দিয়েছে। পরে মালিকের সঙ্গে ঝগড়া করে কাজ না করায় সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। হ্যাঁ, তারা আমাকে ৩০ হাজার টাকা দিয়েছিল দ্রুত দেশে আনার জন্য। কিন্তু অল্প সময়ে ভিতরে দেশে না আনতে পারায় আবার তাদের টাকা তার বোনের জামাই আব্দুল মালিকে মাধ্যমে টাকা ফেরত দিয়েছি। আমার ওপর আনীত অভিযোগ মিথ্যা। আমি এখনো চেষ্টায় আছি মহিলাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে। লকডাউনের জন্য পুরোপুরি কাজ করতে পারছি না, চেষ্টায় আছি।

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা মেহেদী হাসান বলেন, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের আলোকে তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়