সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
১১ টা ৮ মিঃ, ১০ মে, ২০২১

হাসপাতাল পালানো ৭ করোনা রোগী জামিনে মুক্ত

যশোর সদর হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যাওয়া ১০ জনের মধ্যে ভারত ফেরত ৭ জনকে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়েছে। সোমবার (০৯ মে) বিকেল সাড়ে ৪টায় শুনানি শেষে তাদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহাদী হাসান।
জুয়েল মৃধা

কোর্ট পরিদর্শক ইন্সপেক্টর কামরুজ্জামান জামিনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, সোমবার দুপুরে তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ।

গত ২৩ ও ২৪ এপ্রিল ভারত ফেরত করোনা আক্রান্ত কিছু পাসেপার্ট যাত্রী যশোর জেনারেল হাসপাতালে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। এরপর হাসপাতাল থেকে ৭ ভারত ফেরত করোনা আক্রান্ত ও স্থানীয়ভাবে আক্রান্ত তিনজন মোট ১০ জন পালিয়ে যান। বিষয়টি ২৬ এপ্রিল সংবাদ মাধ্যমে প্রচার হওয়ায় তোলপাড় শুরু হয়। এরপর ওইদিন দিবাগত রাতের মধ্যে পলাতক সকলকে শনাক্ত করে হাসপাতালে ফিরিয়ে আনা হয়। 

এ ঘটনায় গত শনিবার (০৮ মে)  যশোর কোতোয়ালি থানার পুলিশ ২০১৮ সালের সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইনের ২৫ (২) ধারায় পলাতকদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ দাখিল করে। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত গতকাল ওই ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। 

সোমবার (১০ মে) সকালে পুলিশ যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল থেকে তাঁদের মধ্যে সাতজনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়।

কোর্ট পরিদর্শক ইন্সপেক্টর কামরুজ্জামান জানান, করোনার কারণে সীমিত পরিসরে আদালতের কার্যক্রম চলছে। গ্রেফতারকৃতদের বিষয়ে বিকেল ৪টা ১৫ মিনিটে শুনানি শুরু করেন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহাদী হাসান। শুনানি শেষে বিচারক আসামিদের পক্ষে তাদের আইনজীবীদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। জামিনের কাগজপত্র সম্পন্ন করে তাদের বাড়ি ফেরানো পাঠানো হয়েছে।

জামিনপ্রাপ্ত সাতজন হলেন- ভারতফেরত যশোর শহরের পশ্চিম বারান্দিপাড়া এলাকার বিশ্বনাথ দত্তের স্ত্রী মণিমালা দত্ত (৪৯), সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপপাড়া গ্রামের মিলন হোসেন (৩২), রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর গ্রামের নাসিমা আক্তার (৫০), খুলনা সদর উপজেলার বিবেকানন্দ (৫২), খুলনার পাইকগাছা উপজেলার ডামরাইল গ্রামের আমিরুল সানা (৫২), খুলনার রূপসা উপজেলার সোহেল সরদার (১৭) এবং স্থানীয় রোগী যশোর সদর উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের রবিউল ইসলামের স্ত্রী ফাতেমা (১৯)।

এদিকে, অভিযুক্ত ভারত ফেরত সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার শেফালি রানী সরদার (৪০) এবং স্থানীয় যশোর সদর উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের একরামুল কবীরের স্ত্রী রুমা (৩০) ও যশোর শহরের ওয়াপদা গ্যারেজ এলাকার ভদ্র বিশ্বাসের ছেলে প্রদীপ বিশ্বাস (৩৭) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেলে তাদেরও গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলেও জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়