সম্পূর্ণ নিউজ সময়
অন্যান্য সময়
৯ টা ২৩ মিঃ, ১০ মে, ২০২১

বন্দির কান কামড়ে ছিঁড়ে ফেলল আরেক বন্দি!

জেলের মধ্যে এক বন্দির কান কামড়ে ছিঁড়ে ফেলল অন্য বন্দি। সেই কাটা কানের অংশ আবার বরফের মধ্যে রেখে হাসপাতালে ছুটলেন কারারক্ষীরা। সঙ্গে রক্তাক্ত অবস্থায় আহত বন্দিকেও নিয়ে যাওয়া হল হাসপাতালে। রাত পর্যন্ত হাসপাতালে চলে কানের অস্ত্রোপচার। রোববার (০৯ মে) বিকেলে কলকাতার প্রেসিডেন্সি জেলে এমন ঘটনা ঘটে। যা ঘিরে দেখা দিয়েছে তীব্র চাঞ্চল্য।  পুলিশ ও কারা সূত্রে জানা গেছে, এদিন প্রেসিডেন্সি জেলের সাজাপ্রাপ্ত বন্দিদের ‘কনভিক্ট ওয়ার্ডে’ই ঘটনাটি ঘটে। এখানেই একই ওয়ার্ডে ছিল দুই সাজপ্রাপ্ত বন্দি মুহাম্মদ গোলাপ ও মুহাম্মদ সুলতান। গোলাপের সঙ্গে সুলতানের বিবাদ লেগেই থাকত। ওইদিন বিকেলে সেই বিবাদ চরমে ওঠে। তখনও লকআপে যায়নি বন্দিরা। 
অন্যান্য সময় ডেস্ক

তার আগেই ওয়ার্ডের বাইরে দু’জনের মধ্যে প্রথমে ঝগড়া শুরু হয়। তারপর শুরু হয় মারপিট। অন্য বন্দিরা কারারক্ষীদের জানিয়েছে যে, হঠাৎই গোলাপ নামে ওই বন্দি সুলতানের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। অন্যরা ছুটে আসার আগেই গোলাপ সুলতানের কান কামড়ে দেয়। ছিঁড়ে নেয় সুলতানের কানের অংশ। রক্তাক্ত অবস্থায় যন্ত্রণায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে সুলতান। খবর পেয়েই ছুটে আসেন কারাকর্তারা। পরে, অভিযুক্ত গোলাপকে আলাদা সেলে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে, কেটে নেওয়া কানের অংশটি কুড়িয়ে নেন কারারক্ষীরা। খবর পেয়ে আসেন প্রেসিডেন্সি জেলের চিকিৎসকরাও। তাদের পরামর্শে বরফের ভিতর রেখে দেওয়া হয় কানের ওই অংশ। জেলের চিকিৎসকরা সুলতনের প্রাথমিক চিকিৎসা করেই তাকে নিয়ে যান এসএসকেএম হাসপাতালে। সঙ্গে বরফের মধ্যে করে নিয়ে যাওয়া হয় কানের ওই অংশ। 

কারা সূত্রের খবর, রাত পর্যন্ত অস্ত্রোপচার করে ওই কানের অংশ জোড়া লাগানোর চেষ্টা হয়। কখনও খাওয়াদাওয়া, আবার কখনও বেআইনি মোবাইল ফোন রাখা ও অন্যান্য কারণেও বন্দিদের নিজেদের মধ্যে ঝগড়া বাধে। কী কারণে গোলাপের সঙ্গে সুলতানের ঝগড়া বেঁধেছিল, তা জানার চেষ্টা হচ্ছে বলে জানিয়েছে কারা দপ্তর।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়